রবিবার | ০৪ জুন, ২০২৩

বান্দরবান বিশ্ববিদ্যালয় এলাকার আতংকের নাম রকি ভাই

প্রকাশঃ ৩১ মার্চ, ২০২৩ ০৪:৩৪:৩৭ | আপডেটঃ ০৩ জুন, ২০২৩ ০২:৫৯:৪৪  |  ৬৬২
সিএইচটি টুডে ডট কম, বান্দরবান। বান্দরবান সদর উপজেলায় একসময় ছিনতাইয়ের ঘটনা শূন্যের কোটায় থাকলেও এখন প্রকাশ্যে ছিনতাই করছে রকি নামে এক যুবক। তার কিশোর গ্যাংয়ের ছেলেদের কাছে তার নাম “রকি ভাই”। গত ৪ মাস ধরে সুয়ালক এলাকার নব নির্মিত বান্দরবান বিশ্ববিদ্যালয়ের আশেপাশের এলাকায় নিয়মিত ছিনতাই করে আসলেও অজ্ঞাত কারনে এই রকি ভাই পুলিশের ধরাছোঁয়ার বাইরে।

স্থানীয়রা জানায়, বান্দরবানের সুয়ালক ও হলুদিয়া এলাকায় দিন দুপুরে মোটর সাইকেল ব্যবহার করে পথচারিদের অস্ত্রের ভয় দেখিয়ে মারধর করে মোবাইল, টাকা, ব্যাগ ছিনিয়ে নেয় সে, নারীদের করেন শ্লীলতাহানি। এই সময় তার সহযোগী থাকেন আরো বেশ কয়েকজন। ইয়াবা সেবন ও ইয়াবা ব্যবসার অর্থ যোগাড় করতেই ছিনতাইয়ের পথ বেছে নেয় তারা, আর তাদের ভয়ে এলাকার কেউ মুখ খোলার সাহস পায়না। হলুদিয়া এলাকার রাজীব    বড়ুয়ার সন্তান এই রকি।

এই বিষয়ে বান্দরবান শহরের বিকাশ এজেন্ট ব্যবসায়ি বিশ্বজিত দেব বলেন, বৃহস্পতিবার তিনটায় বান্দরবান হলুদিয়া এলাকায় একটি দোকানে হালকা নাস্তা করতে গেলে হঠাৎ একটা ছেলে বাইক নিয়ে এসে আমাকে কোন কারন ছাড়াই মারাত্মকভাবে আঘাত করে এবং আমার হাতে থাকা মোবাইল কেড়ে দৌড় মেরে বাইকে উঠে পালিয়ে যায়, আমিও দৌড়ে গিয়ে ছিনতাইকারীর হাত থেকে আমার মোবাইল কেড়ে নিয়ে ফেলি এবং ছিনতাইকারী আমার পেটে মারাত্মকভাবে আঘাত করে। পরে স্থানীয় লোকজন এগিয়ে আসলে ছিনতাইকারী বাইক নিয়ে পালিয়ে যায়। ব্যবসায়ি বিশ্বজিত দেব আরো বলেন, স্থানীয়রা জানায় এই ছিনতাইকারীর নাম রকি। বান্দরবান বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় রাতের বেলায় কেউ বাইক নিয়ে আসলে তাদের কে ধরে টাকা, মোবাইল এবং অন্যান্য জিনিস হাতিয়ে নিয়ে জঙ্গলের ভিতর দিয়ে পালিয়ে যায়। আগে রাতে ছিনতাই করতো, এখন দিন দুপুরে প্রকাশ্য ছিনতাই শুরু করেছে রকি ও তার দলের ছেলেরা জানায় স্থানীয়রা।

সুত্রে জানা গেছে, বান্দরবান বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় গত মাসে রাত ১০টার দিকে কেরানীহাট থেকে মোটর সাইকেলে আসা এক মোটরসাইকেল আরোহীকে অস্ত্র দেখিয়ে সব কিছু ছিনিয়ে নেয় কয়েকজন যুবক, যা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ব্যাপক ভাবে প্রচার হয়। এছাড়াও খুব ভোরে যারা বান্দরবান-কেরানীহাট সড়কে চলাচল করে তাদের টার্গেট করে বান্দরবান বিশ্ববিদ্যালয় এলাকার নীরব স্থানে কয়েকজন যুবক পথচারীদের ওপর আক্রমন করে তাদের সব মামলামাল লুটে নিয়ে যায়।

সুয়ালক এলাকার বাসিন্দা মো: মোরশেদ জানান, বিশ্ববিদল্যায় এলাকায় পুলিশের নজরদারি বাড়ানো দরকার। প্রায় সময় সেই এলাকায় বখাটের আড্ডা জমছে আর পাহাড়ের নীর্জন এলাকা হওয়ায় অনেকের চলাচল করতে কষ্ট হয় কেননা কোন সময় কি ঘটনা ঘটে বলা মুশকিল। বান্দরবানের শান্তি ও সম্প্রীতি বজায় রাখতে প্রশাসনের দ্রুত বিষয়টি নজর দেয়া দরকার বলে জানান তিনি।

এই ব্যাপারে জানতে চাইলে বান্দরবানের পুলিশ সুপার মো:তারিকুল ইসলাম জানান, সম্প্রতি সুয়ালক এলাকায় বেশ কয়েকটি অপ্রীতিকর ঘটনার সংবাদ পাওয়া গেছে এবং এই ঘটনাগুলোতে কয়েকজন যুবক জড়িত রয়েছে এমন সংবাদ আমরা পেয়েছি এবং তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করতে পুলিশ কাজ শুরু করেছে।

বান্দরবান |  আরও খবর
এইমাত্র পাওয়া
আর্কাইভ
সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত, ২০১৭-২০১৮।    Design & developed by: Ribeng IT Solutions