মঙ্গলবার | ১৬ অক্টোবর, ২০১৮

লামায় নৌকা ডুবিতে ৩জনের মধ্যে ২জনের লাশ উদ্ধার

প্রকাশঃ ০৬ অগাস্ট, ২০১৮ ০৯:৩৮:৩২ | আপডেটঃ ১৪ অক্টোবর, ২০১৮ ১০:২২:২০  |  ১২৯
সিএইচটি টুডে ডট কম, বান্দরবান। বান্দরবান জেলার লামায় নৌকা ডুবিতে ৩জন নিখোঁজের ঘটনার ২ দিন পরে সোমবার (৬ আগষ্ট) সকালে মাতামুহুরী নদীতে ভেসে উঠল ২জনের লাশ। ফায়ার সার্ভিস ও লামা থানা পুলিশ লাশ ২টি উদ্ধার করে নিহতের স্বজনরা তাদের পরিচয় নিশ্চিত করে। প্রাথমিক সুরহাতাল রিপোর্ট শেষে স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের উপস্থিতিতে লাশ গুলো তাদের পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

লামা ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন ইনচার্জ (লিডার) বিশ্বান্তর বিকাশ বড়–য়া বলেন, সোমবার ভোর ৬ টার দিকে মাতামুহুরী নদীর মিশনঘাট এলাকায় পানিতে লাশ ভাসতে দেখে আমাদের খবর দেয় স্থানীয়রা। আমরা স্থানীয়দের সহযোগিতায় পুলিশকে সাথে নিয়ে দ্রুত লাশটি উদ্ধার করি। লাশটি গত শনিবার বিকেলে নৌকা ডুবিতে নিখোঁজ ফাইতং ইউনয়িনের চিংকক পাড়ার লোলেক মুরুং এর বলে তার মেয়ে চিংরুং ও ছেলে মেনরিং মুরুং সনাক্ত করে। অপরদিকে বেলা সাড়ে ১০টায় লামা পৌরসভার লামামুখ এলাকার মাতামুহুরী নদী ও লামা খালের মোহনায় নৌকা ডুবির ঘটনাস্থল হতে আরেকটি লাশ ভেসে উঠে। মেওলারচর নদীর ঘাটে আমরা লাশটি উদ্ধার করি। লাশটি নৌকা ডুবিতে নিখোঁজ লামা সদর ইউনিয়নের নতুন লাইল্লা পাড়ার পয়াং মুরুং এর ছেলে মেনপ্রে মুরুং এর বলে সনাক্ত করে তার মা সংরুই মুরুং ও স্ত্রী সংকু মুরুং।
এখনো পর্যন্ত লামা সদর ইউনিয়নের তাউ পাড়ার চিংক্রাত মুরুং এর ছেলে রেনসাং মুরুং (৪০) এর লাশ পাওয়া যায়নি। লাশটি উদ্ধারে পুলিশ, ফায়ার সার্ভিস ও স্থানীয়রা কাজ করছে।
লাশ উদ্ধারের ঘটনাস্থলে উপস্থিত  লামা থানা পুলিশের অফিসার ইনচার্জ (তদন্ত) লিয়াকত আলী  বলেন, লাশ গুলো অনেক ফুলে পঁচে গেছে। পুলিশ সদস্যরা ও ফায়ার সার্ভিসের লোকজন লাশগুলো উদ্ধার করে। প্রাথমিক সুরহাতাল শেষে নিকট আত্মীয়দের কাছে জনপ্রতিনিধিদের উপস্থিতিতে লাশ গুলো হস্তান্তর করা হয়েছে। অপর নিখোঁজ রেনসাং মুরুং কে খুঁজছি আমরা।

প্রসঙ্গত, গত শনিবার বিকেলে লামা পৌরসভার লামামুখ এলাকার মাতামুহুরী নদী ও লামা খালের মোহনায় নৌকা ডুবে ৩ জন নিখোঁজের ঘটনা ঘটে। ১৮ জন যাত্রী নিয়ে নৌকা ডুবে গেলে ১৫ জন কূলে ফিরে আসে বাকী ৩ জনকে পাওয়া যায়নি। আজ ২ জনের লাশ উদ্ধার হলে ও এখনো নিখোঁজ রয়েছে ১ জন।
বান্দরবান |  আরও খবর
এইমাত্র পাওয়া
আর্কাইভ
সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত, ২০১৭-২০১৮।    Design & developed by: Ribeng IT Solutions