সোমবার | ২২ জুলাই, ২০২৪
২০২৩-২০২৪ অর্থ বছরের

পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের “পরিচালনা বোর্ড” এর ৪র্থ সভা অনুষ্ঠিত

প্রকাশঃ ২৯ মে, ২০২৩ ০৩:৫৪:০৮ | আপডেটঃ ২২ জুলাই, ২০২৪ ০৩:৩৪:১৩  |  ৪৯৬
সিএইচটি টুডে ডট কম, রাঙামাটি। সোমবার বেলা ১১ টায় পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ড ‘পরিচালনা বোর্ড’ এর ২০২৩-২০২৪ অর্থ বছরে ৪র্থ সভা পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের রাঙামাটিস্থ প্রধান কার্যালয়ের বোর্ড কক্ষে অনুষ্ঠিত হয়েছে। উক্ত সভায় সভাপতিত্ব করেন পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের চেয়ারম্যান নিখিল কুমার চাকমা। সভার আলোচ্যসূচি ছিলো (১) গত ০৩/০৫/২০২৩ তারিখে অনুষ্ঠিত বোর্ড সভার কার্যবিবরণী পাঠ ও অনুমোদন এবং গৃহীত সিদ্ধান্তের অগ্রগতি পর্যালোচনা; (২) ২০২২-২০২৩ অর্থবছরে পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ড কর্তৃক বাস্তবায়নাধীন প্রকল্পসমূহের ২০ মে ২০২৩খ্রি. পর্যন্ত সময়ের অগ্রগতি পর্যালোচনা (৩) ২০২৩-২০২৪ অর্থবছরে উন্নয়ন সহায়তা কোড নং ২২১০০০৯০০ এবং ২২১০০১১০০ এর প্রকল্প/স্কীম বাছাই ও অনুমোদন; (৪) বিবিধ।

বোর্ডের চেয়ারম্যান নিখিল কুমার চাকমা বক্তব্যের শুরুতে উপস্থিত সকলকে আন্তরিক শুভেচ্ছা জানান। সভাপতির অনুমতিক্রমে সদস্য প্রশাসন ও সদস্য পরিকল্পনা  মোঃ জসীম উদ্দিন সভাটি সঞ্চালনা করেন এবং বিগত পরিচালনা বোর্ড ৩য় সভার সভার কার্যবিবরণী পাঠ করে শোনান। অতঃপর তিনি বিগত সভায় গৃহীত সিদ্ধান্তসমূহের বাস্তবায়ন অগ্রগতিসহ পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের জন্য উন্নয়ন সহায়তা কোড নং ২২১০০১১০০ এবং পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন সহায়তা কোড নং-২২১০০০৯০০ এর আওতাধীন প্রকল্প/স্কীমের ২০ মে ২০২৩খ্রি. পর্যন্ত বাস্তবায়ন অগ্রগতি পর্যায়ক্রমে বিস্তারিত উপস্থাপনের জন্য বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলীগণকে অনুরোধ জানান।
 
এছাড়া বোর্ডের আওতাধীন পরিকল্পনা কমিশন কর্তৃক অনুমোদিত প্রকল্পসমূহের প্রকল্প পরিচালকগণ ২০ মে ২০২৩খ্রি. পর্যন্ত সময়ে সার্বিক বাস্তবায়নের অগ্রগতি বিস্তারিত বিবরণ তুলে ধরেন। এসময় তিন পার্বত্য জেলার হেডম্যান কার্যালয়ের গৃহীত কার্যক্রমের অগ্রগতি, আইসিটি প্রকল্পের অগ্রগতি, টেকসই সামাজি সেবা প্রদান প্রকল্পের অগ্রগতি, কৃষি ভিত্তিক তুলাচাষ বৃদ্ধি, সুগারক্রপ চাষাবাদ, কফি ও কাজুবাদাম চাষের মাধ্যমে দারিদ্র হ্রাসকরণ, রায়ামাটি সেচ ড্রেইন নির্মাণ, খাগড়াছড়ি বিভিন্ন উপজেলার সেচ ড্রেইন নির্মাণ শীর্ষক প্রকল্প এবং খাগড়াছড়ি সদর মাস্টার ড্রেইন নির্মাণ, বান্দরবান পল্লী অবকাঠামো উন্নয়ন, বান্দরবান পৌরসভা ও লামা পৌরসভা জলাবদ্ধতা দূরীকরণে মাস্টার ড্রেইন নির্মাণ, সোলার হোম সিস্টেম বিতরণের সার্বিক বাস্তবায়ন অগ্রগতি নিয়ে প্রকল্প পরিচালকগণ পাওয়ার পয়েন্ট প্রেজেন্টেশনের মাধ্যমে বিস্তারিত বিবরণ তুলে ধরেন।

বোর্ডের চেয়ারম্যান বলেন যে, এ সভায় পার্বত্যাঞ্চলের বসবাসরত মানুষের ভাগ্য পরিবর্তনের লক্ষ্যে আগামী অর্থবছরে উন্নয়নমূলক প্রকল্প/স্কীমসমূহ কিভাবে বাস্তবায়ন করা যায় সেটা নিয়ে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে আলোচনায় অধিকতর গুরুত্ব দেয়া হয়। গুরুত্বপূর্ণ পরিচালনা বোর্ড ৪র্থ সভায় তিনি তিন পার্বত্য জেলার জেলা প্রশাসকগণ, পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রিিতনিধি ও পার্বত্য জেলার জেলা পরিষদের প্রতিনিধিগণ উপস্থিত থাকার জন্য তিনি কতৃজ্ঞতা প্রকাশ করেন। এসময় ২০২৩-২০২৪ অর্থবছরে গৃহীত প্রকল্প/স্কীমের বাছাই ও অনুমোদনসহ মন্ত্রণালয়ে তালিকাগুলো প্রেরণের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য নির্বাহী প্রকৌশলীগণদের তিনি দিক নির্দেশনা প্রদান এবং পুরাতন প্রকল্প/স্কীমসমূহগুলো অতিদ্রুত সম্পন্ন করার বিষয়ে তাগিদ দেন।

 বোর্ডের ভাইস চেয়ারম্যান  মোহাম্মদ নুরুল আলম চৌধুরী (অতিরিক্তসচিব)পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ড কর্তৃক বাস্তবায়নাধীন উন্নয়নমূলক প্রকল্প/স্কীমসমূহ সুষ্ঠুভাবে বাস্তবায়নের সময় তিন পার্বত্য জেলার জেলা প্রশাসকগণ এবং সংশ্লিষ্ট সংস্থার পক্ষ থেকে সবসময় সহযোগিতা করার জন্য সকলের প্রতি ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানান।

সদস্য পরিকল্পনা বলেন যে, তিন পার্বত্য জেলায় উপকারভোগী কৃষকদের মাঝে বিভিন্ন ধরনের কৃষি সরঞ্জামাদি বিতরণ করা হয়ে থাকে। সেসব কৃষি যন্ত্রপাতি যথাযথ ব্যবহারের লক্ষ্যে বিতরণের কার্যক্রম শুরু করার পূর্বে জরীপ করা দরকার। যাতে প্রকৃত উপকারভোগী কৃষক সুবিধাভোগ করতে পারে।    

ইয়াছমিন পারভীন তিবরীজি, বান্দরবান পার্বত্য জেলার জেলা প্রশাসক বলেন যে, পার্বত্য চট্টগ্রামে যতগুলো উন্নয়নের কাজ হয়েছে সেটা বেশীর ভাগই পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের মাধ্যমে করা হয়েছে। উন্নয়নের এ ধারাবাহিকতায় বোর্ডের বিরাট ভূমিকা রয়েছে। তিনি শিক্ষা সম্প্রসারণের উপর বেশী গুরুত্ব দেয়ার বিষয়টি আলোচনায় উপস্থাপন করেন। বিশেষ করে পিছিয়ে পড়া জাতিগোষ্ঠীর জন্য নির্মিত ৪টি আবাসিক বিদ্যালয় যাতে প্রকল্প শেষ হওয়ার পরেও পরিকল্পনা গ্রহণ পূর্বক বিশেষ ব্যবস্থায় সচল রাখা হয় এনিয়ে আলোচনায় প্রস্তাব তুলেন।

সভাপতি আলোচনার শেষে তিন পার্বত্য জেলার জেলা প্রশাসকগণকে গুরুত্বপূর্ণ মতামত প্রদানের জন্য ধন্যবাদ জানান এবং উপস্থিত সকলের সুস্বাস্থ্য মঙ্গল কামনা করে সভা সমাপ্তি ঘোষনা করেন।

সভায় পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের চেয়ারম্যান  নিখিল কুমার চাকমা, পার্বত্য চট্টগাম উন্নয়ন বোর্ডের ভাইস চেয়ারম্যান  মোহাম্মদ নুরুল আলম চৌধুরী (অতিরিক্ত সচিব), পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিনিধি মোঃ আলাউদ্দিন চৌধুরী (উপসচিব), রাঙামাটি পার্বত্য জেলার জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মিজানুর রহমান, বান্দরবান পার্বত্য জেলার জেলা প্রশাসক ইয়াছমিন পারভীন তিবরীজি, খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলার জেলা প্রশাসক মোঃ সহিদুজ্জামান, সদস্য বাস্তবায়ন মোহাম্মদ হারুন অর রশীদ (উপসচিব),সদস্য প্রশাসন ও সদস্য পরিকল্পনা মোঃ জসীম উদ্দিন (উপসচিব), রাঙামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদের প্রতিনিধি বিপুল ত্রিপুরা, খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদের প্রতিনিধি শুভ মঙ্গল চাকমা উপস্থিত ছিলেন। এছাড়া খাগড়াছড়ি ইউনিট কার্যালয়ের নির্বাহী প্রকৌশলী মোঃ মুজিবুল আলম, বোর্ডের উপপরিচালক মংছেনলাইন রাখাইন, নির্বাহী প্রকৌশলী আবু বিন মোহাম্মদ ইয়াছির আরাফাত, সিএমইউ জেনারেল ম্যানেজার  পিন্টু চাকমা, হিসাব রক্ষণ কর্মকর্তা কল্যানময় চাকমা, টেকসই সামাজিক সেবা প্রদান প্রকল্পের প্রকল্প ব্যবস্থাপক মোহাম্মদ এয়াছিনুল হক, রাঙামাটি নির্বাহী প্রকৌশলী  তুষিত চাকমা, গবেষণা কর্মকর্তা কাইংওয়াই ম্রো, বাজেট ও অডিট অফিসার এবং ডজী ত্রিপুরা তথ্য অফিসার প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।


রাঙামাটি |  আরও খবর
এইমাত্র পাওয়া
আর্কাইভ
সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত, ২০১৭-২০১৮।    Design & developed by: Ribeng IT Solutions