মঙ্গলবার | ২৯ নভেম্বর, ২০২২

রুমা, রোয়াংছড়ি, থানচি উপজেলায় পর্যটকদের ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা বাড়লো ১২নভেম্বর পর্যন্ত

প্রকাশঃ ০৮ নভেম্বর, ২০২২ ০৯:৪৩:১৪ | আপডেটঃ ২৮ নভেম্বর, ২০২২ ১০:৩০:১৩  |  ১৩৪
সিএইচটি টুডে ডট কম,বান্দরবান। বান্দরবানের রুমা, রোয়াংছড়ি, থানচি উপজেলায় পর্যটকদের ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা বৃদ্ধি করে আগামী ১২ নভেম্বর পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে।

মঙ্গলবার (৮ নভেম্বর) সন্ধ্যায় বান্দরবানের জেলা প্রশাসক ইয়াছমিন পারভীন তিবরীজি স্বাক্ষরিত একটি গণবিজ্ঞপ্তিতে বিষয়টি জানানো হয়।
গত ১০অক্টোবর থেকে বান্দরবান জেলার রুমা-রোয়াংছড়ি,থানচি এবং আলীকদম উপজেলার সীমান্তবর্তী পাহাড়ী এলাকাগুলোতে যৌথবাহিনীর সন্ত্রাসবিরোধী অভিযান শুরু হয়,সাঁড়াশি অভিযানে নিরাপত্তা বিবেচনায় পর্যটকদের ভ্রমণে সাময়িক নিষেধাজ্ঞা জারি করে বান্দরবান জেলা প্রশাসন।
প্রথমে ১৮অক্টোবর থেকে অনিদিষ্টকালের নিষেধাজ্ঞা শুরু হয় বান্দরবানের রুমা ও রোয়াংছড়ি উপজেলায়। পরে ২৩ অক্টোবর থেকে ৩০অক্টোবর পর্যন্ত থানচি ও আলীকদম দুটি উপজেলায় পর্যটকদের ভ্রমণে আবার নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে জেলা প্রশাসন। এরপরে ৩০অক্টোবর থেকে ৪নভেম্বর পর্যন্ত ভ্রমনে নিষেধাজ্ঞার সময় বাড়ানো হয়। পরে গণবিজ্ঞপ্তি জারি করে ৪নভেম্বর থেকে ৮নভেম্বর পর্যন্ত বান্দরবানের ৪উপজেলায় ভ্রমনে নিষেধাজ্ঞা বৃদ্ধি করা হয়। এরপরে সর্বশেষ সন্ধ্যায় বান্দরবানের জেলা প্রশাসক ইয়াছমিন পারভীন তিবরীজি স্বাক্ষরিত একটি গণবিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে ৪উপজেলা থেকে আলীকদম উপজেলাকে বাদ দিয়ে রুমা,রোয়াংছড়ি এবং থানচি উপজেলায় পর্যটকদের ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা বৃদ্ধি করে আগামী ১২ নভেম্বর পর্যন্ত বাড়ানো হয়।

বান্দরবানের জেলা প্রশাসক ইয়াছমিন পারভীন তিবরীজি জানান,বান্দরবানের দুর্গম এলাকাগুলো সন্ত্রাস বিরোধী যৌথবাহিনীর অভিযান চলমান রয়েছে আর এই সকলস্থানে যাতে ভ্রমনে গিয়ে কোন দেশী বিদেশী পর্যটক কোন সমস্যার সম্মুখীন না হয় সেজন্য আগামী  ১২নভেম্বর পর্যন্ত বান্দরবানের রুমা, রোয়াংছড়ি এবং থানচি উপজেলায় পর্যটকদের ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা বাড়ানো হয়েছে। জেলা প্রশাসক আরো জানান, বান্দরবানের অন্য ৪টি উপজেলা বান্দরবান সদর,লামা,আলীকদম এবং নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলায় কোন নিষেধাজ্ঞা নেই আর এই উপজেলায় দেশী বিদেশী পর্যটকরা অনায়াসে ভ্রমন করতে পারবে।

এদিকে ১৮অক্টোবর থেকে বান্দরবানের ৪উপজেলায় নিষেধাজ্ঞা শুরুর পর থেকেই বান্দরবান জেলা পর্যটকশুন্য হয়ে পড়েছে এবং বেকার সময় কাটাচ্ছে জেলার হোটেল-মোটেল ও পর্যটকবাহী যানবাহনসহ পর্যটন সংশ্লিষ্ট ব্যবসায়ীরা।

পর্যটন |  আরও খবর
এইমাত্র পাওয়া
আর্কাইভ
সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত, ২০১৭-২০১৮।    Design & developed by: Ribeng IT Solutions