রবিবার | ১৬ জুন, ২০২৪

লংগদুতে ব্রাশ ফায়ারে ইউপিডিএফ কর্মীসহ নিহত ২, ইউপিডিএফের নিন্দা

প্রকাশঃ ১৮ মে, ২০২৪ ১২:৪৯:০০ | আপডেটঃ ১৬ জুন, ২০২৪ ০২:৩৩:১৭  |  ৬০০
রাঙামাটি/ লংগদু প্রতিনিধি, সিএইচটি টুডে ডট কম । রাঙামাটির লংগদু উপজেলার সদর ইউনিয়নের হারিহাবাস্থ মনপুদি এলাকায় প্রতিপক্ষের ব্রাশ ফায়ারে এক ইউপিডিএফ কর্মী ও অপর এক সমর্থক নিহত হয়েছে। নিহতরা হলেন, ইউপিএফ কর্মী বিদ্যাধন চাকমা ওরফে তিলক (৪৯)  ও স্থানীয় গ্রামবাসী ধন্যমনি চাকমা (৩২)। আজ শনিবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে লংগদু সদর ইউনিয়নের মনপুদি এলাকায় এ ঘটনা ঘটেছে।

জানা গেছে, আজ শনিবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে লংগদু সদর ইউনিয়নের মনপুদি এলাকায় একটি ঘরে অবস্থান করছিলেন ইউপিডিএফের সদস্যরা। তারা সাংগঠনিক কাজে সেখানে গিয়েছিলেন। এ সময়  প্রতিপক্ষ জেএসএসের সদস্যরা বাড়ী ঘেরাও ব্রাশ ফায়ার করে। এতে ইউপিডিএফ কর্মী বিদ্যাধন চাকমা ওরফে তিলক ও গ্রামবাসী ধন্যমনি চাকমা ঘটনাস্থলে মারা যান। নিহত ইউপিডিএফ কর্মী বিদ্যাধনের বাড়ী  বরকল উপজেলার সুবলং  ইউনিয়নের হাজাছড়া গ্রামের সমমনি চাকমার ছেলে।

এদিকে ইউপিডিএফের সংগঠক সচল চাকমা এক বিবৃতিতে জেলার লংগদুতে জেএসএস সন্তু গ্রুপের সন্ত্রাসী কর্তৃক ইউপিডিএফের এক সদস্য ও এক সমর্থককে গুলি করে হত্যার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন।

বিবৃতিতে তিনি ঘটনার বিবরণ দিয়ে বলেন, আজ সকালে  লংগদুর বড় হাড়িকাবার ভালেদি ঘাট এর পার্শ্ববর্তী স্থানে সন্তু গ্রুপের ৭ জনের একদল সশস্ত্র সন্ত্রাসী এসে সেখানে সাংগঠনিক কাজে নিয়োজিত ইউপিডিএফ কর্মীদের উপর হামলা চালায়। এ হামলায় ঘটনাস্থলে ইউপিডিএফ সদস্য বিদ্যা ধন চাকমা ওরফে তিলক (৪৫) ও সমর্থক ধন্য মনি চাকমা (৩৫) নিহত হন।

রাঙামাটির পুলিশ সুপার মীর আবু তৌহিদ ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, নিহতদের লাশ উদ্ধার করতে ঘটনাস্থলে আইনশৃঙ্খলবাহিনীর সদস্যরা গেছে।

রাঙামাটি |  আরও খবর
এইমাত্র পাওয়া
আর্কাইভ
সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত, ২০১৭-২০১৮।    Design & developed by: Ribeng IT Solutions