বুধবার | ২২ সেপ্টেম্বর, ২০২১

বৃষ্টি আর ঢলের পানিতে তলিয়ে যায় সড়কসহ মহালছড়ি কলেজ এলাকা

প্রকাশঃ ২৫ জুলাই, ২০২১ ১০:৪৯:০৯ | আপডেটঃ ১৭ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ০৭:৪৬:২৬  |  ২০১
সিএইচটি টুডে ডট কম, মহালছড়ি (খাগড়াছড়ি)। সামান্য বৃষ্টি হলেই পাহাড়ি ঢলের পানিতে ডুবে যায় মহালছড়ি সরকারী কলেজ। তখন কলেজের প্রতিটি কক্ষে পানি ঢুকে প্রতি বছর প্রয়োজনীয় কাগজ পত্র ও ফার্ণিচারের ব্যাপক ক্ষতি হয়। এদিকে ঢলের পানি নেমে আসলে ২৪ মাইল নামক জায়গা প্লাবিত হয়।

ফলে খাগড়াছড়ি-রাঙামাটি- মহালছড়ি সদরের সাথে সকল যানবাহন চলাচল ২-৩ ঘন্টা বন্ধ থাকে। এ সময় পথচারীদের চরম দুর্ভোগে পড়তে হয়। ২৪ জুলাই শনিবার দুপুর দেড়টার দিকে মহালছড়ি কলেজে গিয়ে দেখা যায়, সামান্য বৃষ্টি ও পাহাড়ি ঢলে মহালছড়ি কলেজ ও মহালছড়ি সদরে যাওয়ার একমাত্র সড়ক পানিতে তলিয়ে গেছে।

স্থানীয় এক পথচারী কান্তি মারমা বলেন, প্রতিবছর বর্ষা মৌসুমে বিভিন্ন এলাকা থেকে আগত পথচারী ও স্থানীয় জনসাধারণের এ ভোগান্তি পোহাতে হয়। সংশ্লিষ্ট কর্তাব্যাক্তিরা পদক্ষেপ নেওয়ার আশ্বাস দিলেও আজ অবধি কোন সুফল পাওয়া যায়নি।

মহালছড়ি সরকারী কলেজ এর অধ্যক্ষ ফরিদুল আলম চৌধুরী একমাত্র খাল খনন না হওয়াকে দায়ী করে বলেন, পার্শ্ববর্তী খালটি খনন না করায় ২০১৫ সাল হইতে বর্তমান পর্যন্ত এ দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। প্রতিবছর বর্ষা মৌসুম এলেই কলেজের আসবাবপত্র, কক্ষের ফ্লোরসহ একাডেমিক ভবনের ব্যাপক ক্ষতি সাধিত হয়।

তিনি আরো বলেন, খাল খননের জন্য বিভিন্ন দপ্তরে আবেদন করা হয়েছে। কিন্তু আজ অবধি খাল খনন করার কোন লক্ষন দেখতে পাচ্ছিনা। খাল খনন না হওয়া পর্যন্ত এর ভোগান্তি শেষ হবে না বলে মন্তব্য করেন তিনি।

এ বিষয়ে মহালছড়ি উপজেলা পরিষদ এর ভাইস চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগ এর সাধারন সম্পাদক জসিম উদ্দিন এর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, পানি উন্নয়ন বোর্ড থেকে খাল খননের জন্য গত বছর পরিদর্শনে এসেছিলেন এবং অতি দ্রুত খাল খননের কাজ করার আশ্বাস দিয়েছিলেন। কিন্ত এরপর থেকেই আজ অবধি কোন সাড়া পাওয়া যায়নি।

তিনি আরো বলেন, নিজ উদ্যেগে যতটুকু সম্ভব খালের উপড় পড়ে থাকা ময়লা আবর্জনা পরিষ্কার করেছি। সবটুকু তো আর তাঁর একার পক্ষে সম্ভব নয় বলে জানান।


খাগড়াছড়ি |  আরও খবর
এইমাত্র পাওয়া
আর্কাইভ
সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত, ২০১৭-২০১৮।    Design & developed by: Ribeng IT Solutions