বুধবার | ১০ অগাস্ট, ২০২২
জেলা পর্যায়ে সরকারী ও বেসরকারী স্টেকহোল্ডারদের সাথে প্রকল্পের

বান্দরবানে তহ্জিংডং এর আয়োজনে ত্রৈমাসিক সভা অনুষ্ঠিত

প্রকাশঃ ০৪ অগাস্ট, ২০২২ ০৯:২২:৪৯ | আপডেটঃ ০৯ অগাস্ট, ২০২২ ১২:৪১:৫২  |  ১২৩
সিএইচটি টুডে ডট কম, বান্দরবান। বান্দরবানে তহ্জিংডং এর আয়োজনে জেলা পর্যায়ে সরকারী ও বেসরকারী স্টেকহোল্ডারদের সাথে “ শিক্ষা ও দক্ষতা উন্নয়নের মাধ্যমে পার্বত্য চট্টগ্রামে মেয়ে শিশু ও নারীর ক্ষমতায়ন ” প্রকল্পের ত্রৈমাসিক সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

৪ আগস্ট (বৃহস্পতিবার) সকালে  বান্দরবানের বেসরকারী স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা তহ্জিংডং এর আয়োজনে বান্দরবান প্রেসক্লাবের হলরুমে এই ত্রৈমাসিক সভা অনুষ্ঠিত হয়। এসময় সভায় অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বান্দরবান জেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা মিলটন মুহুরী, ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের সহকারী পরিচালক মো.ফরিদ উদ্দিন, প্রেসক্লাবের সভাপতি আমিনুল ইসলাম বাচ্চু, ইউএনডিপির জেলা ব্যবস্থাপক খুশী রায় ত্রিপুরা, তহ্জিংডং এর এরিয়া জোন কো-অর্ডিনেটর লেলুং খুমী।

সভায় তহ্জিংডং এর“ শিক্ষা ও দক্ষতা উন্নয়নের মাধ্যমে পার্বত্য চট্টগ্রামে মেয়ে শিশু ও নারীর ক্ষমতায়ন” প্রকল্পের প্রকল্প ব্যবস্থাপক ম্যামিসিং মারমা এর সঞ্চালনায় এসময় তহ্জিংডং এর মনিটরিং ও রির্পোটিং অফিসার অতনু দেওয়ান, জেন্ডর ও ট্রেনিং অফিসার ইতি বিশ্বাস,ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস এর প্রোগাম অফিসার অরুন বিকাশ চাকমাসহ বিভিন্ন বিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষীকা ,সাংবাদিক ,তহ্জিংডং এর কর্মকর্তা এবং কর্মচারীরা উপস্থিত ছিলেন।

সভার শুরুতে প্রকল্পের অগ্রগতি ও সার্বিক অবস্থা প্রেজেন্টেশন করেন তহ্জিংডং এর “ শিক্ষা ও দক্ষতা উন্নয়নের মাধ্যমে পার্বত্য চট্টগ্রামে মেয়ে শিশু ও নারীর ক্ষমতায়ন ” প্রকল্পের প্রকল্প ব্যবস্থাপক ম্যামিসিং মারমা। এসময় তিনি প্রকল্পের সার্বিক অগ্রগতি এবং ভবিষ্যৎ কার্যক্রম সকলের মাঝে তুলে ধরেন এবং বলেন, তহ্জিংডং একটি স্থানীয় সহযোগীমুলক বেসরকারী এবং আর্থ সামাজিক উন্নয়নমুলক সংস্থা। এ সংস্থাটি বিগত ১৫ই ডিসেম্বর ১৯৯৯ সালে পার্বত্য চট্টগ্রাম অঞ্চলের বান্দরবান জেলায় আত্মপ্রকাশ লাভ করে এবং ২২ ফেব্রুয়ারী ২০০১ সালে সমাজসেবা অধিদপ্তর কর্তৃক অনুমোদন লাভ করে। এসময় তিনি আরো বলেন,“ শিক্ষা ও দক্ষতা উন্নয়নের মাধ্যমে পার্বত্য চট্টগ্রামে মেয়ে শিশু ও নারীর ক্ষমতায়ন ” প্রকল্প এর মূল লক্ষ্য ও উদ্দ্যশে হলো পার্বত্য চট্টগ্রামে পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠীর মেয়ে শিশুদের শিক্ষার মান উন্নয়ন এবং সকল প্রকার নির্যাতন প্রতিরোধে সমাজের সর্বস্তরের জনগণকে সম্পৃক্ত করা।

তহ্জিংডং এর মনিটরিং ও রির্পোটিং অফিসার অতনু দেওয়ান বলেন, এই প্রকল্পটি কার্যকরী সহযোগিতায় রয়েছে ইউএনডিপি আর অর্থায়নে এষড়নধষ অভভধরৎং ঈধহধফধ এবং তহ্জিংডং কর্তৃক বান্দরবানের ৭টি উপজেলায় এটি বাস্তবায়িত হচ্ছে। আর বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদ ও জেলা শিক্ষা অধিদপ্তর দ্বারা নির্বাচিত ১০০টি সরকারী ও বেসরকারী স্কুল ও কলেজে মেয়ে শির্ক্ষাথীদের জন্য নিরাপদ স্থান অর্থাৎ সেফ স্পেস নির্বাচন করা, সেশন পরিচালনার মাধ্যমে কমিউনিটি পর্যায়ে মেয়ে শিক্ষা ও দক্ষতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে সমাজে মেয়ে ও নারী শিক্ষার গুরুত্ব তুলে ধরা, উপজেলা পর্যায়ে নারী ও শিশুর সহিংসতা প্রতিরোধ কমিটির সাথে ত্রৈমাসিক সভা ও মতবিনিময় করা, জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে বিভিন্ন বিষয় ভিত্তিক (নারী শিক্ষার গুরুত্ব ,যুব উন্নয়ন ও দক্ষতা, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ইত্যাদি) ট্রেনিং, সভা, ওর্য়াকশপ/কর্মশালা আয়োজন করা ও স্টেকহোল্ডারদের দিক নির্দেশনামূলক পরামর্শ গ্রহন, নারী ও শিশুর সহিংসতার শিকার ও স্কুল থেকে ঝরেপড়া মেয়ে শিক্ষার্থীকে এককালীন আর্থিক সহায়তা প্রদান করা, স্কুলে মাসিক স্বাস্থ্য ব্যবস্থাপনা বিষয়ে সেশনের মাধ্যমে সচেতনতা করা, যুবদল কর্তৃক পরিচালিত সচেতনতামুলক ক্যম্পেইন, নাটক, জনপ্রিয় মঞ্চায়ন ইত্যাদি কার্যক্রমসহ বিভিন্ন  কার্যক্রম পরিচালনা করা হচ্ছে।

সভায় বক্তব্য রাখতে গিয়ে বান্দরবান প্রেসক্লাবের সভাপতি আমিনুল ইসলাম বাচ্চু বলেন, বান্দরবানে বেসরকারী স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনগুলোর মধ্যে তহ্জিংডং এর কার্যক্রম সন্তোষজনক। এসময় তিনি আরো বলেন, বর্তমান সমাজ ব্যবস্থা অনুযায়ী “ শিক্ষা ও দক্ষতা উন্নয়নের মাধ্যমে পার্বত্য চট্টগ্রামে মেয়ে শিশু ও নারীর ক্ষমতায়ন ” প্রকল্পটি একটি যুগপোযোগী প্রকল্প। এইসময় তিনি আরো বলেন, আমাদের সবাইকে শিক্ষা গ্রহণ করতে হবে আর সেই সাথে সাথে কর্মমুখী শিক্ষার প্রতি আমাদের সবাইকে জোর দিতে হবে সবচেয়ে বেশি।

ইউএনডিপির জেলা ব্যবস্থাপক খুশী রায় ত্রিপুরা বক্তব্য রাখতে গিয়ে বলেন, ইউএনডিপি সমতলের মত পার্বত্য এলাকার জনগণের উন্নয়নের জন্য বিভিন্ন প্রকল্প গ্রহণ করছে এবং বিভিন্ন এনজিওর মাধ্যমে তা বাস্তবায়নের মাধ্যমে এলাকার মানুষের আর্থ সামাজিক উন্নয়ন তরান্বিত করছে। এসময় তিনি আরো বলেন, ইউএনডিপির আগামীতে পার্বত্য এলাকায় বিভিন্ন প্রকল্প বাস্তবায়নের লক্ষ্য রয়েছে আর তারমধ্যে বিভিন্ন বিদ্যালয়ে পুরুষ ও মহিলাদের জন্য আলাদা পয়নিস্কাশন ব্যবস্থা এবং সুপেয় পানির ব্যবস্থা করার কার্যক্রম চলমান রয়েছে।

বান্দরবান |  আরও খবর
এইমাত্র পাওয়া
আর্কাইভ
সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত, ২০১৭-২০১৮।    Design & developed by: Ribeng IT Solutions