ওমিক্রন মোকাবেলায় রাঙামাটি জেলা প্রশাসনের জরুরী সভা অনুষ্ঠিত

প্রকাশঃ ১৩ জানুয়ারী, ২০২২ ০৮:৫৮:৪৭ | আপডেটঃ ১৮ মে, ২০২২ ০৪:২৮:১৮
সিএইচটি টুডে ডট কম, রাঙামাটি। করোনা ভাইরাসের নতুন ধরণ ওমিক্রন মোকাবেলা ও সরকারি বিধিনিষেধ কার্যকর করা বিষয় নিয়ে রাঙামাটি জেলা প্রশাসন জরুরী সভা করেছে। সকালে জেলা প্রশাসক মো: মিজানুর রহমানের সভাপতিত্বে এতে পুলিশ সুপার মেীর মোদাচ্ছের হোসেন, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মো মামুন, সিভিল সার্জন ডা: বিপাশ খীসা, রাঙামাটি পৌরসভার মেয়র আকবর হোসেন চৌধুরীরসহ প্রশাসনের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

সভায় সিভিল সার্জন জানান ডা বিপাশ খীসা, পরীক্ষার হার অনুযায়ী সংক্রামণের ঝুকি নির্ধারণ করা হয়েছে। এতে আতংকিত হওয়ার কিছু নেই, রাঙামাটিতে রোগী তুলনামুলকভাবে অনেক কম। তবে আমাদের স্বাস্থ্য সচেতন হতে হবে।

এছাড়া তিনি আরো জানান, নভেম্বর মাসে আক্রান্তের সংখ্যা ছিলো ১০জন, ডিসেম্বর মাসেই আক্রান্ত সংখ্যা ছিল ২৬ জন জানুয়ারির ১৪ দিনেই সে সংখ্যা ২৬ জন। এ পর্যন্ত ৩১ হাজার ৮৬৩ জন ছাত্র-ছাত্রীকে করোনার টিকা প্রদান করা হয়েছে। যা গড় তুলনায় ৭৩ শতাংশ। সাধারণ টিকা প্রদানের ক্ষেত্রেও রাঙামাটি সারা দেশের তুলনায় এগিয়ে আছে। যার গড় শতাংশে ৫৩।

সভায় মন্ত্রী পরিষদের দেয়া ১১ দফা বাস্তবায়নে মোবাইল কোর্ট মাঠে থাকবে বলে জানানো হয়। সভায় রাত ৮টার পর শপিংমল বন্ধ, পর্যটন স্পটগুলোতে মাস্ক, সামাজিক দুরত্বের পাশাপাশি সীমিত লোক সমাগম নিশ্চিত, রেস্তোরাগুলো খাবারের সময় টিকার সনদ রাখা, এবং সভা সমাবেশর বন্ধ থাকবে বলে জানানো হয়।  ১১ দফা বাস্তবায়নে জেলা প্রশাসনের পাশাপাশি, ব্যবসায়ী, জনপ্রতিনিধি ও আইন শৃঙ্খলাবাহিনীকে সমন্বিতভাবে কাজ করতে অনুরোধ জানান জেলা প্রশাসক।

এদিকে জরুরী সভার পর স্বাস্থ্যবিধি মানাতে জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপার এবং পৌর মেয়রের নেতৃত্বে মাস্ক বিতরণ ও জনসচেতনতা সৃষ্টিতে বনরুপার কাঁচাবাজার এলাকায় প্রচার অভিযান চালানো হয়।



যারা আইন বা স্বাস্থ্যবিধি মানবে না, তাদের জেল জরিমানা করা হবে বলেও প্রশাসনের কর্মকর্তারা হুশিয়ারি উচ্ছারন করেন।

 

সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত, ২০১৭-২০১৮।    Design & developed by: Ribeng IT Solutions