রাবিপ্রবি’তে কর্মচারিদের পেশাগত দক্ষতা উন্নয়নে অভ্যন্তরীণ প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত

প্রকাশঃ ৩০ নভেম্বর, ২০২৩ ০৮:২০:৩৬ | আপডেটঃ ১৮ এপ্রিল, ২০২৪ ০৮:৫৪:৩৮

সিএইচটি টুডে ডট কম, রাঙামাটি। আজ বৃহস্পতিবার রাঙ্গামাটি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে ইনস্টিটিউশনাল কোয়ালিটি অ্যাসিউরেন্স সেল (আইকিউএসি) এর আয়োজনে বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৭-২০ গ্রেডের কর্মচারীদের পেশগত দক্ষতা উন্নয়নে সকাল ১০:০০ ঘটিকায় বিশ্ববিদ্যালয়ের দীপংকর তালুকদার একাডেমিক ভবনের সম্মেলন কক্ষে প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত হয়। প্রশিক্ষণে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন রাবিপ্রবি'র ভাইস চ্যান্সেলর ও আইকিউএসি'র পরিচালক প্রফেসর ড. সেলিনা আখতার এবং বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন রাবিপ্রবি’র প্রো-ভাইস চ্যান্সেলর ও আইকিউএসি'র অতিরিক্ত পরিচালক প্রফেসর ড. কাঞ্চন চাকমা। প্রশিক্ষণে প্রশিক্ষক হিসেবে রাবিপ্রবি’র রেজিস্ট্রার মোহাম্মদ ইউসুফ এবং আইকিউএসি'র অতিরিক্ত দায়িত্ব জনাব মাহবুব আরা উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠাটি  সঞ্চালনা করেন আইকিউএসি'র  অতিরিক্ত পরিচালক (ইটিএল) ও সিএসই বিভাগের সহকারী অধ্যাপক জনাব ধীমান শর্মা।

 

প্রশিক্ষণে প্রধান অতিথি হিসেবে রাবিপ্রবি'র ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. সেলিনা আখতার বলেন, অফিসের একজন কর্মচারীর আচার-আচরণে সৎ, সততা ও আন্তরিক হতে হবে। কাজ ও কর্মস্থলের প্রতি মায়া থাকতে হবে। তাহলে তিনি কর্মক্ষেত্রে অনেক সফল হবেন। প্রত্যেককে নিজ নিজ কাজের প্রতি ভালোবাসা থাকতে হবে। কিভাবে এ বিশ্ববিদ্যালয়কে উন্নতির দিকে নিয়ে যাওয়া যায় সবাইকে একসাথে কাজ করা, সফট স্কীলে দক্ষ হওয়া এবং যারা দক্ষ নয় তাদেরকে প্রয়োজনে প্রশিক্ষণের মাধ্যমে দক্ষ করে গড়ে তোলে স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণের জন্য সবাইকে ভূমিকা রাখতে হবে। 

 

প্রো-ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. কাঞ্চন চাকমা বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন অনুসারে এখানে সবাই কর্মচারী এবং প্রয়োজনে সার্বক্ষণিক কাজ করার মন মানিসকতা থাকতে হবে। অফিস সময়সূচী অনুযায়ী সবাইকে সচেতন থাকার জন্য উদাত্ত আহবান জানান। একজন কর্মচারীর অতিরিক্ত যেকোন দায়িত্ব পালনের আগ্রহের মানসিকতার মাধ্যমে প্রতিষ্ঠান এগিয়ে যাবে।  

 

রাবিপ্রবি’র রেজিস্ট্রার মোহাম্মদ ইউসুফ বলেন, যিনি যত দক্ষ তার ভবিষ্যৎ তত উজ্জ্বল হবে সেজন্য সবাইকে যেকোন কাজে দক্ষ হওয়ার জন্য আহবান জানান। একজন দক্ষতা সম্পন্ন লোক কম শিক্ষিত হলেও উচ্চ শিক্ষিত লোকের থেকে বেশি কার্যক্রম সুচারুভাবে সম্পন্ন করতে পারেন। এখানে শিক্ষাগত যোগ্যতা আসল মাপকাঠি নয়। সেজন্য নিজেকে সব সময় যেকোন কাজে দক্ষতা অর্জন, সঠিক সময়ে অফিসে আসা ও ত্যাগ করা দরকার। একজন কর্মচারী আস্থা ও নিষ্ঠার সাথে কাজে মনোযোগী হওয়া নিজের কাজকে ভালোবাসা এবং পরস্পরের প্রতি সহানুভূতি সহযোগিতার মনোভাব পোষণ করা। 

 

প্রশিক্ষণে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগ দপ্তরের কর্মচারীগণ প্রশিক্ষনার্থী হিসেবে উপস্থিত ছিলেন।   

 

সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত, ২০১৭-২০১৮।    Design & developed by: Ribeng IT Solutions