বান্দরবানে জ্ঞানের আলো ছড়াচ্ছে ভ্রাম্যমাণ লাইব্রেরী

প্রকাশঃ ০৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ১০:০১:১৫ | আপডেটঃ ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০২:১৬:০২
সিএইচটি টুডে ডট কম, বান্দরবান। “আলোকিত মানুষ চাই” এই স্লোগানে শিক্ষার আলো ছড়াতে পার্বত্য জেলা বান্দরবানে চালু হয়েছে বিশ্বসাহিত্য কেন্দ্রের ভ্রাম্যমাণ লাইব্রেরীর কার্যক্রম। শহরের ৪০ টি পয়েণ্টে সপ্তাহের ৬ দিন ধরে চলছে এর কার্যক্রম।

সকাল ৮ টা থেকে শুরু করে রাত ৮ টা পর্যন্ত চলে বই দেওয়া নেওয়া ও পড়ার কাজ। প্রতিটি পয়েন্টে দুই ঘন্টা সময় ধরে অবস্থান করে ভ্রাম্যমাণ লাইব্রেরীর পিক আপ ভ্যানটি।  

ভ্রাম্যমাণ লাইব্রেরীর কর্মকর্তা মাসুদ রহমানের দেয়া তথ্যমতে, প্রায় তিন হাজার বই রয়েছে এই লাইব্রেরীতে। শিশু-কিশোর থেকে শুরু করে সব শ্রেণীর মানুষের পড়ার মতো বই রাখা হয়েছে এই লাইব্রেরীতে, যে কেউ কিছু শর্ত মেনে লাইব্রেরীর সদস্য হতে পারেন।

তিনি  আরো জানান, সাধারণ সদস্যদের জন্য ফেরত যোগ্য ১০০ টাকা, বিশেষ সদস্যদের জন্য ২০০ টাকা এবং বই রক্ষনাবেক্ষণের জন্য ১০ টাকা ফি জমা দিতে হয়। এর মধ্যে সাধারণ সদস্যরা ১৫০ টাকা মূল্যমানের বই এবং বিশেষ সদস্যরা ২০০ টাকা মূল্যের বই বাড়ীতে নিয়ে পড়তে পারেন। তবে এসব বই ফেরত দিতে হয়। বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদের লাইব্রেরী বিভাগের আওতায় বিশ্বসাহিত্য কেন্দ্রের ভ্রাম্যমাণ লাইব্রেরীর এই কার্যক্রম এখন চলছে জেলা সদরে। মাত্র কয়েক সপ্তাহের প্রচারণায় শতাধিক বিভিন্ন পেশার মানুষ লাইব্রেরীটির সদস্য হয়েছে বলে জানান সংশ্লিষ্টরা।

বই সংক্রান্ত যে কোন যোগাযোগ করতে ০১৭২২ ৭৭৪ ৮২৫ এবং ০১৩১৮২৪৫৭৬৪ নাম্বারে যোগাযোগ করা যাবে।বান্দরবান জেলা পরিষদের লাইব্রেরী বিভাগের আওতায় বিশ্বসাহিত্য কেন্দের ভ্রাম্যমাণ লাইব্রেরীর কার্যক্রম। মাত্র দুই সপ্তাহের প্রচারণায় অর্ধশতাধিক বিভিন্ন পেশার মানুষ লাইব্রেরীটির সদস্য হয়েছেন বলে জানান সংশ্লিষ্টরা।

মানুষের মধ্যে পাঠ্য অভ্যাস বাড়াতে প্রতিটি বাড়িতে বই পৌঁছে দেয়ার লক্ষ্য নিয়ে বিশ্বসাহিত্য কেন্দ্রের ভ্রাম্যমাণ লাইব্রেরীর এই কার্যক্রম রয়েছে দেশের প্রায় প্রতিটি জেলা শহরে, আর সারাদেশে এর বর্তমান সদস্য সংখ্যা প্রায় সাড়ে তিন লক্ষ বলে জানায় সংশ্লিষ্টরা।

সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত, ২০১৭-২০১৮।    Design & developed by: Ribeng IT Solutions