রাঙামাটিতে জমে উঠেছে কোরবানির পশুর হাট

প্রকাশঃ ০৯ অগাস্ট, ২০১৯ ০৫:৪২:৩১ | আপডেটঃ ২৫ অগাস্ট, ২০১৯ ১০:৪৯:৪৩
সিএইচটি টুডে ডট কম, রাঙামাটি। রাঙামাটিতে জমে উঠেছে কোরবানির পশুর হাট।  শুক্রবার থেকে পশুর কেনাকাটার হাট গুলোতে প্রচুর গরু ছাগল দেখা গেছে। যদিও ক্রেতার উপস্থিতি ছিল তুলনামুলক কম। তবে গত ৩-৪ দিনের তুলনায় ক্রেতা একটু বেড়েছে। ক্রেতার উপস্থিতি কম থাকলেও গরু বিক্রেতারা তাদের নিদিষ্ট দর ধরে বসে আছে। ক্রেতারা যাচাই বাছাই করে দরে দামে মিললে কুরবানির জন্য পশু কিনছেন। গতবারের চেয়ে এবার স্থানীয় পশু হাটে প্রচুর গবাদি পশু উঠেছে।

অনেকে অভিযোগ করেছেন, এখন থেকে গত ১৫-২০ দিন ধরে যে হারে গরু রাঙামাটির বাহিরে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে ওই সব গরু যদি স্থানীয় পশুর হাটে উঠত তাহলে কম দামে গরু ক্রয় করতে পারতেন ক্রেতারা। এ ব্যাপারে প্রশাসনের কোন মাথা ব্যথা নেই বললেই চলে। প্রশাসন বলছে, এলাকার চাহিদা মিটিয়ে কুরবানির পশু বাইরে যাচ্ছে।

পশু বিক্রেতা মো.নুরুল আমিন ও ইব্রাহিম বলেন,পশু হাটে প্রচুর কোরবানির গরু উঠেছে। ক্রেতার চেয়ে গরু অনেক বেশী। তবে আমাদের কিনা বেশী তাই কোন রকম দাম উঠলেই গরু বিক্রি করে ফেলবো। এবার মনে হয় তেমন লাভ হবে না। আমরা লংগদু উপজেলার মাইনী বাজার থেকে ১৪টি গরু এনেছি ট্রাক টার্মিনাল পশু হাটে এর মধ্যে ৪-৫ বিক্রি করেছি। বাকি গুলো রয়ে গেছে। বাজারে অনেক গরু উঠেছে। ১২আগষ্ট কোরবানি ঈদ হলে আরো ২-৩দিন সময় হাতে আছে হয়তো বা এর মধ্যে বিক্রি হয়ে যাবে।

এবার পৌর ট্রাক টার্মিনালে সর্বোচ্চ গরুর দাম উঠেছে প্রায় ২লক্ষ টাকা। তবে ক্রেতারা বড় গরু কম কিনছেন। বেশীর ভাগ ক্রেতারা মাঝারি আকাঁরের গরু কিনতে দেখা গেছে।  মাঝারি আকাঁরের গরুর দাম ৫৫ থেকে শুরু করে ৮৫-৯৫এর মধ্যে। অন্য দিকে খাঁসি ও চেমি ছাগলের দাম অনেক বেশী। যারা স্বল্প খরচে একা একা কোরবানি দেবেন তারা ছাগল কিনতে আগ্রহী।

রাঙামাটি জেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডা: বরুন কুমার দত্ত জানান, রাঙামাটিতে এবার কোরবানির জন্য দেড় লক্ষাধিক গরু, ছাগল প্রস্তুত করা হয়েছে।  তিরি আরো বলেন, কৃষকরা লাভের আশায় গরু জেলার বাইরে নিয়ে যান পার্বত্য এলাকার গরুর চাহিদা চট্টগ্রামসহ অন্য এলাকায় রয়েছে। কারন এগুলো প্রাকৃতিক উপায়ে লালন পালন করা হয়।

কোতয়ালী থানার অফিসার ইনচার্জ ওসি মীর জাহেদুল হক রনি ও জেলা ট্রাফিক পুলিশের ইনচার্জ মো.ইসমাইল বলেন,পশু হাটে সর্বক্ষণ পুলিশ নজরদারি রয়েছে। অন্য দিকে পশু হাটে যে কোন ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে এবং  যানবাহন নিয়ন্ত্রণে থানা পুলিশের পাশাপাশি ট্রাফিক পুলিশও কাজ করছে।

সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত, ২০১৭-২০১৮।    Design & developed by: Ribeng IT Solutions