সোমবার | ১২ এপ্রিল, ২০২১
রাঙামাটিতে আন্তঃধর্মীয় সম্প্রীতি সভা

রাঙামাটির নেতাদের সফল নেতৃত্বের কারণে এখানে কোন ধর্মীয় অঘটন ঘটেনি : ধর্মপ্রতিমন্ত্রী

প্রকাশঃ ০৭ মার্চ, ২০২১ ০৯:৫১:১২ | আপডেটঃ ১২ এপ্রিল, ২০২১ ০৩:৩৩:৫২  |  ২২০
সিএইচটি টুডে ডট কম, রাঙামাটি। ৭ মার্চ (রবিবার) রাঙামাটি ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠীর সাংস্কৃতিক ইনষ্টিটিউট এর অডিটোরিয়ামে আন্তঃধর্মীয় সম্প্রীতি সভা অনুষ্ঠিত হয়। রাঙামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অংসুইপ্রু চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত অনুষ্ঠানে  প্রধান অতিথি ছিলেন ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয় এর  প্রতিমন্ত্রী  মোঃ ফরিদুল হক খান এমপি।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয় এর প্রতিমন্ত্রী মোঃ ফরিদুল হক খান এমপি বলেছেন, রাঙামাটির নেতাদের সফল নেতৃত্বের কারণে এখানে কোন অঘটন ঘটেনি এবং ঘটার সম্ভাবনা নেই। বাংলাদেশ স্বাধীন হবার পর থেকে এদেশটি একটি অসাম্প্রদায়িক দেশ হিসাবে পরিচালিত হয়ে আসছে। পার্বত্য চট্টগ্রামের সকল ধর্মের মানুষের মনমানসিকতা ভালো হবার কারণে এ এলাকার সকলে সুখে শান্তিতে বসবাস করে আসছে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীও এটাই প্রত্যাশা করেন। সবাই মিলেমিশে থাকবেন, সবার সঙ্গে আন্তরিকতা, হৃদ্যতা যেন থাকে, কেউ দুঃখে পড়লে তার পাশে সকলকে দাঁড়াতে হবে। এটাই হোক আমাদের আজকের দিনের অঙ্গীকার। সরকার সকল ধর্মের উন্নয়ন এবং কল্যাণের জন্য অর্থ বরাদ্দ রেখেছে।

তিনি উদাহরণ টেনে বলেন, নেপাল সরকার বাংলাদেশ সরকারকে বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বীদের জন্য জায়গা বরাদ্দ দিয়েছে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী সে জায়গায়  ৬৯ কোটি টাকা ব্যয়ে একটি বৌদ্ধ মন্দির করছেন। এছাড়া সরকার দেশের সকল জেলা উপজেলায় মসজিদ করার জন্য ৯হাজার কোটি টাকার প্রকল্প হাতে নিয়েছেন। প্রতি উপজেলায় একটি মডেল মসজিদ করার জন্য ১৪কোটি এবং জেলা সদরে একটি মসজিদ নির্মাণে ১৯ কোটি টাকা ব্যয় হবে। এভাবে দেশে সর্বমোট ৫৬০টি মসজিদ নির্মাণ করা হচ্ছে। তিনি আশ^স্ত করে বলেন, প্রত্যেক ধর্মের জন্য পর্যাপ্ত অর্থ বরাদ্দ আছে। এলাকার এমপি, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান, ডিসি, এসপি এবং উপজেলা পরিষদ সকলে মিলে প্রত্যেক উপজেলায় গিয়ে সকল ধর্মের উন্নয়নের জন্য সরকার কি করছে সে বিষয়ে জনগণকে অবহিত করার জন্য অনুরোধ জানান তিনি।
 
সভায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন রাঙামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্য অংসুই ছাইন চৌধুরী এবং সভার বিষয়বস্তু উপর বক্তব্য রাখেন রাঙামাটি ইসলামিক ফাউন্ডেশন এর উপপরিচালক মোঃ ইকবাল বাহার চৌধুরী। আরও বক্তব্য রাখেন এমপি দীপংকর তালুকদার, এমপি মনোরঞ্জন শীল গোপাল, পুলিশ সুপার মীর মোদ্দাছ্ছের, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক শিল্পী রাণী রায়, কাউখালী উপজেলা চেয়ারম্যান শামসুদ্দোহা চৌধুরী, বরকল উপজেলা চেয়ারম্যান বিধান কুমার চাকমা, রাঙামাটি সদর উপজেলা চেয়ারম্যান মোঃ শহীদুজ্জামান মহসিন রোমান, বাংলাদেশ খ্রিষ্টিয়ান এসোসিয়েশন এর সহ সভাপতি ফাষ্টার এফতসাংয়া পাংখোয়া, বৌদ্ধ ধর্ম কল্যাণ ট্রাষ্ট এর দীপক বিকাশ চাকমা, পূজা উদযাপন পরিষদ এর সাধারণ সম্পাদক স্বপন কান্তি মহাজন, কালেক্টরেট জামে মসজিদ এর ইমাম মাওলানা আবুল হাসেম।

উল্লেখ্য, অনুষ্ঠানে বিভিন্ন ধর্মের ৩০০ জন প্রতিনিধি অংশগ্রহণ করেন।

রাঙামাটি |  আরও খবর
এইমাত্র পাওয়া
আর্কাইভ
সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত, ২০১৭-২০১৮।    Design & developed by: Ribeng IT Solutions