শনিবার | ০৬ জুন, ২০২০

খাগড়াছড়িতে হামে ৩০ শিশু আক্রান্ত, নিহত ১

প্রকাশঃ ২৯ মার্চ, ২০২০ ০৬:৪৩:০৪ | আপডেটঃ ০৫ জুন, ২০২০ ১১:০৩:৪৭  |  ৩৯৮
সিএইচটি টুডে ডট কম, খাগড়াছড়ি। খাগড়াছড়ি সদর ও দীঘিনালা উপজেলায় হামের প্রাদুর্ভাব দেখা দিয়েছে। রোববার বিকেল পর্যন্ত হামে আক্রান্ত হয়ে এক শিশু নিহত ও অন্তত ৩০ জন অসুস্থ হয়েছে। জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ ও স্থানীয় প্রশাসন তাৎক্ষণিক এসব এলাকায় মেডিকেল টিম নিয়ে স্বাস্থ্য সেবা প্রদান করছে।

দীঘিনালা উপজেলার রতিচন্দ্র কার্বারী পাড়ায় ধনিতা ত্রিপুরা নামে এক শিশুর মৃত্যুর পর ঘটনাটি জানাজানি হয়। দীঘিনালা ছাড়াও খাগড়াছড়ির সদরের ভাইবোনছড়ার সুদর্শনপাড়া, রবিধন পাড়া, আলামনি পাড়া ও সামবাড়ি গ্রামে হামে আক্রান্ত হচ্ছে শিশুরা।

ভাইবোনছড়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান পরিমল ত্রিপুরা জানান, গত ৪-৫ দিন ধরে দূর্গম রবিধন পাড়া, আলামনি পাড়া, সামবাড়ি সহ আশপাশের গ্রামের শিশুরা অসুস্থ হয়ে পড়ছে। স্বাস্থ্য কর্মীদের জানানোর পর মেডিকেল টিম এসে শিশুদের চিকিৎসা সেবা দিচ্ছে।

দীঘিনালা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ উল্লাহ জানান, খবর পেয়ে মেডিকেল টিম ঘটনাস্থলে গিয়ে শিশুদের চিকিৎসা দেয়া শুরু করেছে। যেহেতু হাম আক্রান্ত শিশুর সংখ্যা বাড়ছে সেহেতু উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সাথে আলোচনা করে আক্রান্ত এলাকা গুলোতে দ্রুত সময়ের মধ্যে হামের টিকা দেয়ার কার্যক্রম শুরু করা হবে।

খাগড়াছড়ির সিভিল সার্জন ডা. নুপুর কান্তি দাশ জানান, নিহত ও আক্রান্ত শিশুদের নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য পাঠানো হচ্ছে। প্রাথমিক ভাবে ধারণা করা হচ্ছে শিশুরা হামে আক্রান্ত হতে পারে। চলতি মাসে হামের টিকা দেয়ার কথা ছিল। কিন্তু করোনা পরিস্থিতির কারণে তা স্থগিত করা হয়েছে। পাহাড়ের দূর্গম এলাকাগুলোতে হামের প্রাদুর্ভাব দেখা দেয়ায় এ কার্যক্রম শুরুর পরিকল্পনা করা হচ্ছে।

প্রসঙ্গত, রাঙামাটির সাজেক ইউনিয়নের বেশকিছু গ্রামে হামে আক্রান্ত হয়ে চলতি মাসে ৮ শিশুর মৃত্যু হয়েছে। এছাড়া শতাধিক শিশু হামে আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসাধীন।

এইমাত্র পাওয়া
আর্কাইভ
সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত, ২০১৭-২০১৮।    Design & developed by: Ribeng IT Solutions