রবিবার | ০৫ এপ্রিল, ২০২০

কাপ্তাইয়ে কর্ণফুলী নদীতে নিঁখোজ মা ছেলের সন্ধান এখনো মেলেনি

প্রকাশঃ ১৫ ফেব্রুয়ারী, ২০২০ ০৪:২৪:১৫ | আপডেটঃ ০৪ এপ্রিল, ২০২০ ০৯:০৯:১৮  |  ৭৮২
সিএইচটি টুডে ডট কম, রাঙামাটি। রাঙামাটি কাপ্তাইয়ের চন্দ্রঘোনায় কয়লার ডিপু এলাকা থেকে কর্ণফুলি নদীতে চট্টগ্রাম থেকে আসা আন্তর্জাতিক কৃষ্ণ ভাবনামৃত সংঘের ইসকনের ৫৩ জনের একটি পর্যটকবাহী ইঞ্জিন ডুবে যাওয়ার ঘটনায় এখনো মা ছেলে নিঁখোজ রয়েছে।

বোট ডুবে গিয়ে নিখোঁজ ৩জনের মধ্যে গতকাল বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে দেবলীলা (১০) নামে একজনের মরদেহ উদ্ধার করা হলেও আরা দুইজনের লাশ এখনো উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি।

শুক্রবার রাতে উদ্ধার তৎপরতা শেষ করা হলেও আজ সকাল থেকে আবারো উদ্ধার তৎপরতা চালাচ্ছে ফায়ার সার্ভিস ও কাপ্তাই নৌ-বাহিনীর দল। উদ্ধার হওয়া দেবলীনা দে (১০) চট্টগ্রামের হাজারীগলির রতন দে'র কন্যা।

এখনো নিখোঁজ রয়েছে, চট্টগ্রামের মিরশ্বরাই উপজেলার জোরারগঞ্জের রাজীব মজুমদার এর শিশু পুত্র বিজয় মজুমদার (৫) এবং স্ত্রী টুম্পা মজুমদার (৩০)।

কাপ্তাই নৌ বাহিনীর শহীদ মোয়াজ্জেম ঘাটির অধিনায়ক ক্যাপ্টেন আবদুল মুকিত খান জানান, সকাল থেকে আবারো উদ্ধার অভিযান শুরু করেছে নৌ বাহিনী ও ফায়ার সার্ভিস। তিনি আরো জানান, ২৪ ঘন্টার অতিবাহিত হওয়ার পর লাশ আর পানির নিচে থাকার কথা নয়, লাশ ভেসে উঠার কথা। আমরা আশ পাশে তল্লাসি অভিযান চালাচ্ছি।  

প্রসঙ্গত: চট্টগ্রামের নন্দন কানন এলাকার রাধামাধব মন্দির থেকে প্রায় ১২৭ জন ইসকন সদস্য কাপ্তাইয়ের শীলছড়ি এলাকার বিভিন্ন মন্দিরে তীর্থ ভ্রমণে আসে। পরে তারা কর্ণফুলী নদী হয়ে ৩টি বোটে চা বাগানে যাওয়ার পথে ২টি বোট কুলে ভিড়লেও অপর ১টি বোট কুলে ভিড়ার আগেই নৌ ডুবির ঘটনা ঘটে। এতে সবাইকে উদ্ধার করা হলেও ৩জন নিখোঁজ হয়।

রাঙামাটি |  আরও খবর
এইমাত্র পাওয়া
আর্কাইভ
সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত, ২০১৭-২০১৮।    Design & developed by: Ribeng IT Solutions