বুধবার | ২৯ জানুয়ারী, ২০২০

রাঙামাটিতে সতীনের শিশু সন্তানকে গলায় ছুরি চালিয়ে হত্যার চেষ্টা, আটক ১

প্রকাশঃ ১২ জানুয়ারী, ২০২০ ০৬:৫৪:১৩ | আপডেটঃ ২৯ জানুয়ারী, ২০২০ ১০:২৮:০০  |  ২৩৯১
সিএইচটি টুডে ডট কম, রাঙামাটি। রাঙামাটি শহরে পারিবারিক কলহে সতীনের শিশুকে গলা কেটে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। রোববার দুপুর ১২ টার দিকে শহরের নিউ কোর্ট বিল্ডিং এর  সোনালি ব্যাংক এর পেছনে  বস্তি এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয়রা জানান, প্রাথমিক স্কুলের শিক্ষক ফারুক আহম্মদ বিপু ২০১১ সনে কাউসার ফেরদৌসীকে প্রথমে বিয়ে করেন, তাদের ঘরে একটি ছেলে একটি মেয়ে রয়েছে তারা তবলছড়ি থাকেন। পরে আবার ২০১৩ সনে বিপু ফারজানা আক্তারকে বিয়ে করে শহরের নিউ কোর্ট বিল্ডিং এর  সোনালি ব্যাংক এর নিচে ভাড়া বাসা থাকতেন, সেখানে তাদের আরেকটি ছেলে হয়। বিপু দুই বিয়ে করলেও বেশীর ভাগ থাকতেন দ্বিতীয় স্ত্রীর সাথে, তবে উভয় পরিবারকে ভরন পোষণ এর খরচ দিতেন।

বিপুর দুই সংসারের কারণে প্রায় সময় পারিবারিক কলহ লেগে থাকত, আজ সকালে বিপুর প্রথম স্ত্রী কাউসার ফেরদৌসীর সাথে বিপুর কথা কাটাকাটি হয় এর এক পর্যায়ে দেখে নেয়ার হুমকি দিয়ে লাইন কেটে। বিপু জানান, কোন কিছু নিয়ে তর্ক হলে এরকম প্রায়শ রাগ করে তার স্ত্রী হুমকি দিতেন, কিন্তু এমন ঘটনা ঘটাবেন তিনি কল্পনা করতে পারেননি।   
 

আজ দুপুরের ঘটনার বিবরণ দিতে গিয়ে বিপুর দ্বিতীয় স্ত্রী ফারজানা আক্তার জানান, দুপুরে তার সন্তান ফারজান (৪) কে ঘরের ভিতরে রেখে রোদে কাপড় শুকাতে দিতে বাইরে যান।  এ সময় বিপুর প্রথম স্ত্রী কাউসার ফেরদৌসী  ঘরে এসে শিশুর গলা ছুরি দিয়ে কোপাতে থাকে। এ সময় শিশুর চিৎকারে প্রতিবেশীরা এসে ফেরদৌসকে আটক করে এবং আহত শিশুকে রাঙামাটি জেনারেল হাসপাতালে পাঠায়। হাসপাতালে প্রয়োজনীয় চিকিৎসা দিয়ে শিশুকে উন্নত চিকিৎসার জন্য চট্টগ্রামে প্রেরণ করা হয়েছে। অভিযুক্ত বিপু তালুকদারের প্রথম স্ত্রীকে স্থানীয়রা হাতে নাতে আটক করে পুলিশের হাতে তুলে দেয়। এ ঘটনায় এলাকায় ক্ষোভ দেখা দেয়।



শিশুর মা ফারজানা আক্তার বলেন, সে বিপুর দ্বিতীয় স্ত্রী। তার স্বামীর  প্রথম স্ত্রী কাউসার ফেরদৌসী হঠাৎ ঘরে ভিতরে প্রবেশ করে একটি ছুরি দিয়ে
তার সন্তানের গলা কাটতে থাকেন। চিৎকার শুনে সে ঘরের ভিতরে আসলে তাকে মারতে এগিয়ে আসে। এ সময় সে বলে তোর জন্য আমার সংসার ধংস হয়েছে। তোকেও শেষ করে দেব বলে ছুরি উচিয়ে এগিয়ে আসলে দৌড়ে বাইরে এসে চিৎকার করলে প্রতিবেশীরা ফেরদৌসীকে আটক করে। ফারাজানা বলেন, ফেরদৌসী কখনো তাদের বাড়িতে আসেনি। এ প্রথম সে বাড়িতে এসে এ কাজ করেছে।

রাঙামাটি জেনারেল হাসপাতালে  আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা শওকত আকবর খান বলেন, শিশুটির গলায় প্রায় ৫/৬  ইঞ্চি পরিমাণ কাটা পড়েছে। দ্রুত তাকে রক্ত দিয়ে কাটা অংশ সেলাই করে শিশুকে বাচিয়ে রাখার চেষ্টা করা হয়েছে। একটি উন্নতি হলে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য চট্টগ্রামে পাঠানো হবে।



রাঙামাটির অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ছুফি উল্লাহ জানান,  অভিযুক্ত ফেরদৌসীকে স্থানীয়রা আটক করে তাদের হাতে তুলে দিয়েছে। এ ঘটনায় একটি মামলা প্রক্রিয়ধীন রয়েছে।


রাঙামাটি |  আরও খবর
এইমাত্র পাওয়া
আর্কাইভ
সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত, ২০১৭-২০১৮।    Design & developed by: Ribeng IT Solutions