শুক্রবার | ২৯ মে, ২০২০
শান্তি চুক্তি বর্ষপুর্তি অনুষ্ঠানে

একমত থাকলে আগামী কয়েক বছরের মধ্যে শান্তি চুক্তি বাস্তবায়ন সম্ভব : দীপংকর তালুকদার এমপি

প্রকাশঃ ০২ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০৭:৪৯:৫৪ | আপডেটঃ ২৯ মে, ২০২০ ০৩:২১:০৪  |  ১০৩৩
সিএইচটি টুডে ডট কম, রাঙামাটি। সাবেক পার্বত্য প্রতিমন্ত্রী ও সংসদ সদস্য দীপংকর তালুকদার এমপি বলেছেন, শান্তি চুক্তির পুর্ণ বাস্তবায়ন হোক, জেলা পরিষদ ও আঞ্চলিক পরিষদ নির্বাচন হোক, জেলা পরিষদে সকল বিষয় হস্তান্তরিত হোক আমরাও চাই। আমরা মনে নির্বাচিত জনপ্রতিনিধি না থাকলে জবাবদিহীতা থাকে না। আমরা এসব বিষয়ে একমত আমাদের কোন আপত্তি নাই, কিন্তু যখনই বলা হয়, শান্তি চুক্তি বাস্তবায়ন না হওয়াই অসন্তোষ সেখানেই আমরা একমত নই।

দীপংকর তালুকদার এমপি আরো বলেন, পাহাড়ে অশান্তি চুক্তি , বাস্তবায়ন না হওয়ার একমাত্র কারণ, যারা বলছেন তাদের বলতে চাই চুক্তি বাস্তবায়ন না হওয়া একমাত্র কারণ হতে পারে না, এখানে অস্ত্রবাজি, চাঁদাবাজি চলছে, আর চাঁদাবাজি করতে গিয়ে এলাকায় আধিপত্যে বিস্তারের লড়াইয়ে অশান্ত হয় পাহাড়। আমরা যদি সবাই একমত হই আগামীতে শান্তি চুক্তি বাস্তবায়নের জন্য আমরা ঐক্যবদ্ধ হবো এবং যারা বিভিন্নভাবে শান্তিচুক্তির চলমান প্রক্রিয়াকে ব্যাহত করার চেষ্টা করছে তাদের আমরা প্রতিহত করব, আমরা যদি এই বলে বলীয়ান হতে পারি, তাহলে ২২ বছরে যেটি হয়নি আগামী ৩/৪ বছরে সেটি করা সম্ভব হবে।

শান্তিচুক্তির ২২তম বর্ষপুর্তি উপলক্ষে রাঙামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ আয়োজিত ক্ষুদ্র নৃ গোষ্ঠী ইনষ্টিটিউটে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

রাঙামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বৃষ কেতু চাকমার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, রাঙামাটির সংসদ সদস্য দীপংকর তালুকদার।, রাঙামাটি সদর জোন কমান্ডার লে: কর্ণেল মো: রফিকুল ইসলাম পিএসসি,  জেলা প্রশাসক একেএম মামুনুর রশিদ, পুলিশ সুপার মো. আলমগীর কবির, রাঙামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদের মুখ্য নির্বাহী কর্মকর্তা ছাদেক আহাম্মদ সাবেক জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান নিখিল কুমার চাকমা, পার্বত্য চট্টগ্রাম আঞ্চলিক পরিষদের সদস্য মো. কামাল উদ্দিন, জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি চিংকিউ রোয়াজা ও সাধারণ সম্পাদক মো. মুছা মাতব্বর প্রমুখ বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন।




আলোচনা সভা শুরুর আগে কলেজ গেট থেকে একটি বণ্যঢ্য র‌্যালী বের হয়ে ক্ষুদ্র নৃ গোষ্ঠী ইনষ্টিটিউটে গিয়ে শেষ হয়।


রাঙামাটি |  আরও খবর
এইমাত্র পাওয়া
আর্কাইভ
সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত, ২০১৭-২০১৮।    Design & developed by: Ribeng IT Solutions