সোমবার | ১৬ ডিসেম্বর, ২০১৯

বান্দরবানে পিসিজেএসএস এবার শান্তিচুক্তির ২২ বছর পালন করছে না

প্রকাশঃ ৩০ নভেম্বর, ২০১৯ ০৭:২১:০৩ | আপডেটঃ ১৬ ডিসেম্বর, ২০১৯ ১০:১৯:৩২  |  ১২৫২
সিএইচটি টুডে ডট কম, বান্দরবান। ঐতিহাসিক পার্বত্য শান্তিচুক্তির বাইশ বছর পূর্তি হতে যাচ্ছে ২ ডিসেম্বর। পূর্তি উপলক্ষে প্রতিবছরই বান্দরবানে আঞ্চলিক সংগঠন পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতি(জেএসএস) নানা কর্মসূচির আয়োজন করে থাকে।

দিবসটি উপলক্ষে প্রতিবছরই শোভাযাত্রা, আলোচনাসভা সহ নানা আয়োজন করা হলে ও এবছর নীরব প্রতিবাদ জানিয়ে কোন কর্মসুচি বান্দরবানে নেয়া হচ্ছে না বলে জানান পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতি (জেএসএস) এর যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কে এস মং।  তিনি জানান, গত এক বছর ধরে তাদের উপর রাজনৈতিক দমন পীড়ন চলছে। এই অবস্থায় নিরাপত্তার কথা বিবেচনা করে শান্তি চুক্তির কর্মসূচিতে জেএসএস অংশ নিচ্ছেনা এবং তাদের পক্ষ থেকে বান্দরবান জেলার কোথাও কোন অনুষ্ঠানের কর্মসূচি পালন করা হবে না।

তবে ১৯৯৭ সনের পর এই প্রথমবারের মতো চুক্তির পক্ষে কোন কর্মসূচি পালন থেকে বিরত থাকছে পাহাড়ের এই আঞ্চলিক রাজনৈতিক দল জনসংহতি সমিতি (জেএসএস)।

এদিকে বান্দরবান জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক লক্ষীপদ দাস জানান, আওয়ামীলীগ একটি বৃহৎ সংগঠন। এই সংগঠনের হাত ধরে দেশের অর্থনৌতিক ও সামাজিক উন্নয়ন তরান্বিত হচ্ছে । আওয়ামীলীগ কাউকে প্রতিপক্ষ মনে করে না। আওয়ামীলীগ সরকারের আমলেই পার্বত্য চট্টগ্রামে শান্তির লক্ষে ১৯৯৭ সালের ২রা ডিসেম্বর সন্তুু বাহিনী আর আওয়ামীলীগ সরকারের মধ্যে শান্তি চুক্তি সম্পাদিত হয়েছে। আর এই চুক্তির ফলে পার্বত্য জেলায় অনেক শান্তি নেমে এসেছে । তিনি আরো জানান, পার্বত্য এলাকার এই শান্তিতে ইষান্বিত হয়ে কিছু দুস্কৃতিকারী এখনো পাহাড়ে অশান্তি খুন,রাহাজানিসহ নানান অপকর্ম করে যাচ্ছে।

এদিকে বান্দরবান সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো:শহিদুল ইসলাম চৌধুরী জানান, ঐতিহাসিক পার্বত্য শান্তিচুক্তির বাইশ বছর পূর্তি উপলক্ষে বান্দরবানের আঞ্চলিক সংগঠন পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতি(জেএসএস) প্রতিবছর অনুমতি নিয়ে নানা কর্মসুচি উদযাপন করলে ও এবছর কোন কর্মসচুীর অনুমতির আবেদন এখনো পুলিশের কাছে জমা দেয়নি।

বান্দরবান |  আরও খবর
এইমাত্র পাওয়া
আর্কাইভ
সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত, ২০১৭-২০১৮।    Design & developed by: Ribeng IT Solutions