মঙ্গলবার | ১০ ডিসেম্বর, ২০১৯
১২ ঘন্টার ব্যবধানে

রাইখালীতে বাড়ী ঘরে হানা দিয়ে অর্থ-স্বর্ণালংকার লুট করার অভিযোগ

প্রকাশঃ ২২ নভেম্বর, ২০১৯ ০৫:১৭:০২ | আপডেটঃ ১০ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০৪:১২:০৯  |  ৪১০
সিএইচটি টুডে ডট কম, কাপ্তাই (রাঙামাটি)। পার্বত্য জেলা রাঙামাটির কাপ্তাইয়ের রাইখালী ইউনিয়নে একের পর এক ঘটছে চাঁদাবাজি, সস্ত্রাসী হামলা, ডাকাতি ও লুটপাটের ঘটনা। সশন্ত্র সন্ত্রাসীদের হামলায় রক্ষা নেই নারীদেরও। গত সপ্তাহের রাইখালীর ৩টি বাড়িতে ঘটে ডাকাতি-লুটপাটের ঘটনা, বেদম প্রহর করা এক নারীকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় ভর্তি করা হয় হাসপাতালে। বৃহস্পতিবার  দুপুরে হাফছড়ি এলাকায় সড়ক নির্মাণ কাজে চাঁদা দাবির করে না পাওয়ায় ১০জন নির্মাণ শ্রমিকের উপর ছুরিকাঘাত ও লাঠিসোটা দিয়ে আঘাত করে রক্তাক্ত করা হয়।

এই ঘটনার রেশ কাটতে না করতে ১২ঘন্টার ব্যবধানে মধ্যরাতে আবারও ওই ইউনিয়নের মতিপাড়ার তালতলী এলাকায় ৩’বাড়িতে হানা দিয়ে নগদ ২৫ লক্ষ টাকা, ৮ভরি স্বর্ণলংকার, ডেভিট কার্ডসহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ আসবাপত্র লুট করে বলে অভিযোগ করেন, বাড়ির মালিক ব্যাংক কর্মচারী উচি মারমা ও সেনা সিনিয়র ওয়ারেন্ট অফিসার ক্যসুই অং মারামা। তারা জানান, হামলাকারিরা মুখোশ পরিহিত, লাঠি ও ধারালো অস্ত্রে সজ্জিত ছিল। তাদের জিম্মি করে আসবাবপত্র ভাংচুর করার সময় বাড়ির মালিক উচি মারমা বাঁধা দিলে তাকেও বেদম প্রহর করা হয় বলে অভিযোগ করেন তারা।

উল্লেখ্য, একইদিন বৃহস্পতিবার দুপুর ২টায় উপজাতীয় সন্ত্রাসীরা হাফছড়িমুখ এলাকায় হামলা করে ১০’জন নির্মাণ শ্রমিকের উপর। এসময় তাদের রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। বর্তমানে তারা বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।
এদিকে, ঠিকাদার ফারুক ৪ কোটি টাকার অর্থায়নে দেড় বছর যাবত ব্রিজ-সড়ক নির্মাণ কাজ করছেন, যার কোন কুলকিনারই হয়নি এখনো। ঠিকাদার অভিযোগ করেন, জেএসএস নামধারী একটি দল ইতিমধ্যে মোটা অংকের প্রায় পঞ্চাশ লক্ষ টাকার চাঁদার দাবি করে আসছে। কিছু টাকা দেওয়ার পরেও পরপর তিন বার হামলা করে।  এছাড়া ১৫ নভেম্বর উক্ত সন্ত্রাসীরা হাফছড়ি এলাকায় তিনটি  উপজাতীয় বাড়িতে রাতে  হামলা করে ১০লক্ষ টাকা ও স্বর্ণলংকার নিয়ে যায়। এ ব্যাপারে চন্দ্রঘোনা থানায় অভিযোগ দাখিল করা হয়েছে।

রাইখালী ইউপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান এনামুল হক বলেন, ডাকাত দল একের পর এক হামলা ও লুটপাট করছে। পরপর একাধিক ঘটনায় রাইখালী বাসির মধ্যে আতংক বিরাজ করছে।

চন্দ্রঘোনা থানার অফিসার ইনচার্জ মো. আশ্রাফ উদ্দিন জানান, জেএসএস নামধারী সন্ত্রাসীরা রাইখালী এলাকায় দফায় দফায় হামলা করছে। এরা কোন ডাকাত দল নয় এরা হল মুখোশধারী সন্ত্রাসী। এ সস্ত্রাসী দলটি বৃহস্পবিার (২১নভেম্বর) প্রকাশ্য দিনে দুপুরে দশ নির্মাণ শ্রমিকদের কুপিয়ে আহত করেছে। আমরা অভিযোগ পেলে অবশ্যই তাদের বিরুদ্ধে আইনী ব্যবস্থা নিব।

এইমাত্র পাওয়া
আর্কাইভ
সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত, ২০১৭-২০১৮।    Design & developed by: Ribeng IT Solutions