বুধবার | ১১ ডিসেম্বর, ২০১৯

কাপ্তাইয়ে মোটর সাইকেলের ধাক্কায় ২ শিক্ষকসহ আহত ৪

প্রকাশঃ ১৩ অক্টোবর, ২০১৯ ০৯:৫৯:১২ | আপডেটঃ ১১ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০৫:২৫:০২  |  ১০৫৭
সিএইচটি টুডে ডট কম, কাপ্তাই (রাঙামাটি)। কাপ্তাইয়ের কাপ্তাই-চট্টগ্রাম সড়কে বহিরাগত বেপরোয়া মটোরসাইকেলের ধাক্কায় রোববার দুপুরে বড়ইছড়ি নূরুল হুদা কাদেরী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক জয়সীম বড়–য়া ও কাপ্তাই উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক মাহাবুব হাসান বাবুকে স্থানীয়রা শিলছড়ির আনসার ক্যাম্প সংলগ্ন এলাকা হতে গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার চন্দ্রঘোনা হাসপাতালে প্রেরণ করে। এই ঘটনায় মোটর সাইকেলের মাধ্যমে ধাক্কা দেওয়া খাগড়াছড়ির নেইন্দা অং মারমা ও তার সঙ্গী কাউখালীর পোয়াপাড়া স্কুলের দশম শ্রেণীর ছাত্রী ইউঅংচি মারমাকেও উদ্ধার করা হয়েছে বলে জানা গিয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শী এবং কাপ্তাই থানার উপ পরিদর্শক গাজী মোরশেদ জানান, কাপ্তাই হতে মোটরসাইকেল যোগে উপজেলায় ফেরার পথে শিলছড়ি এলাকায় বিপরীত দিক থেকে আসা মোটর সাইকেলের ধাক্কায় আহত হয়েছেন জয়সীম বড়ুয়া এবং মাহাবুব হাসান বাবু। বেপরোয়া গতিতে মোটরসাইকেল চালিয়ে বিপরিত দিক হতে নেইন্দা অং মারমা তাঁর সঙ্গী ইউঅংচি মারমাকে সাথে নিয়ে চিৎমরম যাওয়ার পথে অতিরিক্ত গতির ফলে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে মুখোমুখি পড়ে যায়। মোটরসাইকেল দুইটি দুমড়ে মুচড়ে যায়।

এদিকে হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. রাজীব শর্মা জানান, আহত প্রধান শিক্ষক জয়সীম বড়ুয়া মাথায় এবং মুখে গুরুতর আঘাত পাওয়ায় ২৪ ঘন্টা অতিক্রম না হওয়া পর্যন্ত কিছুই বুঝা যাচ্ছে না। পাশাপাশি কাপ্তাই উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক মাহাবুব হাসান বাবু’র ডান হাতের কনুই ভেঙ্গে যাওয়ায় তাকে দ্রুত প্রাথমিক চিকিৎসা প্রদান করে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। অপর দুই মোটরসাইকেল আরোহী নেইন্দা অং মারমার আঘাত সামান্য হওয়ায় তাকে চন্দ্রঘোনা খ্রীস্টিয়ান হাসপাতালে চিকিৎসা প্রদান করা হচ্ছে এবং তার সঙ্গীর আঘাত গুরুতর না হওয়ায় তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা প্রদান করে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।

কাপ্তাই থানার অফিসার ইনচার্জ মো. নাছির উদ্দিন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, দুর্ঘটনা কবলিত মোটর সাইকেল ২টি পুলিশি হেফাজতে আনা হয়েছে। তবে এই বিষয়ে এখন পর্যন্ত কোন পক্ষই থানায় মামলা দায়ের করেনি।

রাঙামাটি |  আরও খবর
এইমাত্র পাওয়া
আর্কাইভ
সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত, ২০১৭-২০১৮।    Design & developed by: Ribeng IT Solutions