বৃহস্পতিবার | ১২ ডিসেম্বর, ২০১৯

লংগদুতে মেয়ের বাল্য বিয়ে মেনে নিতে না পেরে মায়ের আত্মহত্যা

প্রকাশঃ ১৫ জুন, ২০১৯ ০৯:৫৯:৩১ | আপডেটঃ ১০ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০১:২১:১৭  |  ৩৭৪
সিএইচটি টুডে ডট কম, রাঙামাটি। রাঙামাটির লংগদুতে নিজের নাবালিকা মেয়ের বাল্য বিয়ে মেনে নিতে না পেরে বিষপানে আত্মহত্যা করেছেন, মা জামেলা বেগম (৩৫)। শুক্রবার উপজেলার বগাচতর ইউনিয়নের বৈরাগী বাজারে এ ঘটনা ঘটে। পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র এসব তথ্য নিশ্চিত করেছে।

জানা যায়, গোপনে বোনের ছেলে (মেয়ের খালাতো ভাই) লাবলা মিয়ার (২২) সঙ্গে সপ্তম শ্রেণিতে পড়–য়া মেয়ে ফেরদৌসি আক্কারের বিয়ে দেন জামাল উদ্দিন। ফেরদৌসি ওই ইউনিয়নের উগোলছড়ি উচ্চবিদ্যালয়ের ছাত্রী। তাদের এ বিয়েতে স্থানীয় যুবলীগ নেতা আলমগীর হোসেন সহযোগিতা করেন বলে অভিযোগ করেন স্বজনরা। কিন্তু নাবালিকা মেয়ের বিয়ে নিয়ে অমত ছিলেন, জামাল উদ্দিনের স্ত্রী জামেলা বেগম। এ নিয়ে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে পারিবারিক কলহ হয়। এদিকে শুক্রবার সকালে নববধূকে নিয়ে ঢাকার নিজ কর্মস্থল চলে যান লাবলা মিয়া। অপরদিকে মেয়ের বাল্য বিয়ে মেনে নিতে না পেরে আত্মহত্যার পথ বেছে নেন জামেলা। এক পর্যায়ে শুক্রবার বিকালের দিকে ঘরে রাখা কীটনাশক পান করেন তিনি। পরে তাকে মুমুর্ষ অবস্থায় লংগদু উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান স্বজনরা। সেখানে জামেলার মৃত্যু হয়।

লংগদু উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক ফখরুল ইসলাম বলেন, প্রথমে বিষপান করা জামেলাকে মুমুর্ষ অবস্থায় তাদের স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান স্বজনরা। পরে আশঙ্কাজনক হওয়ায় উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে খাগড়াছড়ি জেনারেল হাসপাতালে রেফার করা হয়। কিন্তু সেখানে না নিয়ে স্থানীয় একটি বেসরকারি হাসপাতালে নিয়ে যান স্বজনরা। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে আবার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাওয়া হয়। কিন্তু ততক্ষণেই জামেলার মৃত্যু হয়।

লংগদু থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা রঞ্জন কুমার সামন্ত বলেন, বিষপানে আত্মহত্যা করা জামেলার লাশ ময়নাতদন্তের জন্য শনিবার সকালে রাঙামাটি জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় থানায় একটি ইউডি মামলা হয়েছে। মামলার তদন্ত চলছে।

বগাচতর ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য নজরুল ইসলাম সেন্টু বলেন, মেয়ের বাল্য বিয়ে নিয়ে অমত ছিলেন জামেলার। এ নিয়ে স্বামী জামাল উদ্দিনের সঙ্গে তাদের পারিবারিক কলহ বাঁধে। তা সইতে না পেরে বিষপানে আত্মহত্যা করেছেন জামেলা বেগম।

রাঙামাটি |  আরও খবর
এইমাত্র পাওয়া
আর্কাইভ
সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত, ২০১৭-২০১৮।    Design & developed by: Ribeng IT Solutions