রবিবার | ১৬ জুন, ২০১৯

পন্যবাহী ট্রাকে আগুন দেয়ার ঘটনায় ৩ বাঙালি সংগঠনের প্রতিবাদ

প্রকাশঃ ১০ জুন, ২০১৯ ১০:২৩:৪৩ | আপডেটঃ ১৬ জুন, ২০১৯ ০৭:২৬:৪৬  |  ৩২৬
সিএইচটি টুডে ডট কম, রাঙামাটি। রাঙামাটির বাঘাইছড়ির উপজেলার দীঘিনালা-বাঘাইছড়ি সড়কে পন্যবাহী ট্রাকে আগুনের ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে তিন বাঙালি সংগঠন। সোমবার গণমাধ্যমে পাঠানো পৃথক বিবৃতিতে তিন সংগঠনের নেতৃবৃন্দ এ প্রতিবাদ জানান।

সোমবার ভোরে রাঙামাটির বাঘাইছড়ি উপজেলার মারিশ্যা-দীঘিনালা সংযোগ সড়কের রাবার বাগান এলাকায় একটি মালবাহী ট্রাকে আগুন দেয় দুর্বৃত্ত। এ ঘটনায় পাহাড়ের আঞ্চলিক সংগঠন ইউপিডিএফকে দায়ী করেছে বাঙালি ভিত্তিক সংগঠনগুলো। তবে ইউপিডিএফের পক্ষ থেকে কোনো নেতার বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

গণমাধ্যমে পাঠানো বিবৃতিতে পার্বত্য নাগরিক পরিষদের চেয়ারম্যান ইঞ্জিঃ আলকাছ আল মামুন ভূঁইয়া ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়ে বলেন, ‘পার্বত্য অঞ্চলে বাঙালিরা রোহিঙ্গাদের মতো জীবনযাপন করতে হচ্ছে। সশস্ত্র সংগঠন পাহাড়ে অবৈধ অস্ত্রের দ্বারা সন্ত্রাসী কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে। পার্বত্য অঞ্চলে সন্ত্রাসীদের প্রতিহত করতে প্রশাসন সম্পূর্ণ ব্যর্থ হয়েছে।’
এদিকে পৃথক বিবৃতিতে পার্বত্য বাঙালি ছাত্র পরিষদ রাঙামাটি জেলা শাখার জাহাঙ্গীর আলম বলেন, ‘যারা সন্ত্রাস ও চাঁদাবাজির মাধ্যমে পার্বত্য অঞ্চলকে অস্থিতিশীল করে জুম্মল্যান্ড করার স্বপ্ন দেখতে তাদেরকে আইনের আওতায় আনতে হবে।’
বিবৃতিতে সোমবার আগুনের ঘটনায় জড়িতদের গ্রেফতার করা না হলে পার্বত্যবাসীকে সাথে নিয়ে হরতাল ও অবরোধের মতো কঠোর কর্মসূচি দেওয়া হবে বলে হুঁশিয়ারি দেন জাহাঙ্গীর আলম।
অন্যদিকে পার্বত্য অধিকার ফোরামে নেতৃবৃন্দ বিবৃতিতে বলেন, ‘একদল সশস্ত্র সন্ত্রাসী অস্ত্র দেখিয়ে মুদিমালবাহী ট্রাকটির গতিরোধ করে। সেখানে চারজন যুবক অস্ত্র হাতে দাড়িয়ে ছিলো। পরে তাদের কাছে চাঁদা দাবি করা হয়। চাঁদা দিতে অস্বীকৃতি জানালে এরপর গাড়ি থেকে চালক এবং হেলপারকে নামিয়ে মালবাহি ট্রাকটি পুড়িয়ে দেওয়া হয়। আমরা এ ঘটনায় জড়িতদের আইনের আওতায় আনার দাবি জানাচ্ছি।’

রাঙামাটি |  আরও খবর
এইমাত্র পাওয়া
আর্কাইভ
সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত, ২০১৭-২০১৮।    Design & developed by: Ribeng IT Solutions