শুক্রবার | ১৯ এপ্রিল, ২০১৯

রাঙামাটিতে মারমা সম্প্রদায়ের জলকেলী উৎসব অনুষ্ঠিত (ভিডিওসহ)

প্রকাশঃ ১৫ এপ্রিল, ২০১৯ ০৭:০১:৫২ | আপডেটঃ ১৯ এপ্রিল, ২০১৯ ১২:২৭:২৮  |  ২৯৯
সিএইচটি টুডে ডট কম, রাঙামাটি। পাহাড়ে শেষ হয়েছে তিন দিনব্যাপী বৈসাবি উৎসব। রাঙামাটিসহ তিন পার্বত্য জেলায় উৎসবমুখর পরিবেশে বর্ণিল আয়োজনে অনুষ্ঠিত হয়েছে বর্ষবরণ উৎসব। এখন পাড়ায় পাড়ায় চলছে মারমা সম্প্রদায়ের ঐতিহ্যবাহী জলকেলি উৎসব। সোমবার সার্বজনিন জলোৎসব অনুষ্ঠিত হয়েছে, জেলার কাপ্তাই উপজেলার রাইখালীর নারানগিরি সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে। মারমা সম্প্রদায়ের সংগঠন ‘মারমা সাংস্কৃতিক সংস্থা (মাসাস)’ এ উৎসবের আয়োজন করে। এ ছাড়া একই উপজেলার ঐতিহ্যবাহী চিৎমরম বৌদ্ধ বিহার প্রাঙ্গণেও একই দিন অনুষ্ঠিত হয়েছে জলকেলি উৎসব।

ত্রিপুরা সম্প্রদায়ের বৈসুক, মারমাদের সাংগ্রাই আর চাকমাদের বিজু- এর সংক্ষিপ্ত নাম বৈসাবি। প্রতি বছর বাংলাবর্ষ বিদায় ও বরণে উৎসবটির আয়োজন করে পাহাড়ি জনজাতিগুলো। এটি প্রধান সামাজিক উৎসব তাদের। এতে একাট্টা আবহমান বাংলার চিরায়িত নববর্ষের বৈশাখী উৎসব।

সোমবার জলকেলি উৎসবের আয়োজন করা হয় জেলার কাপ্তাইয়ের নারানগিরি ও চিৎমরমে। সকালে নারানগিরি উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে মারমা সাংস্কৃতিক সংস্থার আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, রাঙামাটির সংসদ সদস্য দীপংকর তালুকদার। এ ছাড়া বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, রাঙামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বৃষ কেতু চাকমা, রাঙামাটি রিজিয়ন কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল সৈয়দ রিয়াদ মেহমুদ ও জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. মুছা মাতব্বরসহ প্রশাসনিক কর্মকর্তাগন।

সাংগ্রাই উদযাপন কমিটির আহবায়ক অংসুই ছাইন চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন, এ কমিটির সদস্য সচিব মংক্য মারমা ও মারমা সসাংস্কৃতিক সংস্থা মাসস এর সভাপতি অংশুপ্রু চৌধুরী। জলকেলি উৎসবে মেতে ওঠে মারমা সম্প্রদায়সহ নির্বিশেষে সব সম্প্রদায় ও জাতিগোষ্ঠীর নারী-পুরুষ।



রাঙামাটি |  আরও খবর
এইমাত্র পাওয়া
আর্কাইভ
সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত, ২০১৭-২০১৮।    Design & developed by: Ribeng IT Solutions