শুক্রবার | ২২ ফেব্রুয়ারী, ২০১৯

হত্যাকারীদের গ্রেফতারের দাবিতে রাইখালীতে আধাবেলা সড়ক অবরোধ পালিত

প্রকাশঃ ০৫ ফেব্রুয়ারী, ২০১৯ ০৬:৩৫:০১ | আপডেটঃ ২১ ফেব্রুয়ারী, ২০১৯ ১০:২৬:২৫  |  ২৫৩
সিএইচটি টুডে ডট কম, রাঙামাটি। জেলার কাপ্তাইয়ে আওয়ামী লীগের দুই কর্মীকে হত্যার প্রতিবাদে এবং জড়িতদের বিচার দাবিতে মঙ্গলবার সকাল-দুপুর সড়ক অবরোধ কর্মসূচি পালন করেছে, স্থানীয় জনগণ। এতে নেতৃত্ব দেন কাপ্তাই উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি অংসু চাইন চৌধুরী, রাইখালীর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ইউসুফ তালুকদারসহ অন্যরা। অবরোধ চলাকালে রাঙামাটি-বান্দরবান-রাজস্থলী সড়কে কোনো প্রকার যানবাহন চলাচল করতে পারেনি।

সোমবার উপজেলার রাইখালীর কারিগরপাড়ায় স্থানীয় আওয়ামী লীগকর্মী মংসানু মারমা ও ছাত্রলীগকর্মী জাহিদ হোসেন নামে দলটির দুই কর্মীকে গুলিতে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা। এ জোড়া খুনের ঘটনায় জেএসএসকে দায়ী করছে আওয়ামী লীগ। এ ঘটনায় এলাকায় বিরাজ করছে থমথমে অবস্থা। পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে নিরাপত্তাবাহিনীর টহল জোরদার করা হয়েছে।

এদিকে মঙ্গলবার লাশ দুটি রাঙামাটি জেনারেল হাসপাতালে ময়নাতদন্ত শেষে চন্দ্রঘোনা নিয়ে যাওয়া হয়। তবে জাহিদ হোসেনের লাশ নিতে তার বড় ভাই রাশেদুল ইসলাম হাসপাতালে আসে মংসানুর লাশ পরিবার চন্দ্রঘোণা থানা থেকে বুঝে নেয়। গত একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের কয়েক দিন মংসানু আওয়ামী লীগে এবং জাহিদ হোসেন ছাত্রলীগে যোগ দেন। ধারণা করা হচ্ছে, মংসানু আওয়ামী লীগে যোগ দেয়ায় প্রতিপক্ষীয়রা ঘটনাটি ঘটিয়েছে। ঘটনার প্রতিবাদে ও জড়িতদের গ্রেফতার করে আইনের আওতায় উপযুক্ত বিচারের দাবিতে পালিত কর্মসূচি থেকে ঘটনার জন্য জেএসএসকে দায়ী করেছেন, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ইউসুফ তালুকদার। এছাড়াও রাইখালী ইউনিয়নের ভালুক্যাপাড়ায় একটি পুলিশক্যাম্প স্থাপনের দাবি জানিয়েছেন তিনি। অবিলম্বে দাবি কার্যকর না হলে সামনে কঠোর কর্মসূচি দেয়া হবে বলে ঘোষণা দেন তিনি।

চন্দ্রঘোনা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. শফিউল আজম ( তদন্ত) জানান, দুই আওয়ামী লীগকর্মীকে খুনের ঘটনায় তদন্ত শুরু হয়েছে। মামলার প্রক্রিয়া চলছে। আমরা মামলার অপেক্ষায়। নিহতদের পরিবারের পক্ষে কেউ না করলে পুলিশ বাদী হয়ে মামলা করবে।

রাঙামাটি |  আরও খবর
এইমাত্র পাওয়া
আর্কাইভ
সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত, ২০১৭-২০১৮।    Design & developed by: Ribeng IT Solutions