বুধবার | ১২ ডিসেম্বর, ২০১৮

কাউখালীতে সন্তান হত্যার ৯দিন পর বাবা আটক

প্রকাশঃ ১৮ নভেম্বর, ২০১৮ ০৫:৫৫:০৮ | আপডেটঃ ১০ ডিসেম্বর, ২০১৮ ০৯:৪৭:৫৯  |  ৪৫৮৬
সিএইচটি টুডে ডট কম, রাঙামাটি। রাঙামাটির কাউখালীতে বাবার (এরেক্কা চাকমা) বিরুদ্ধে তার নিজ সন্তানকে (নিরব চাকমা) হত্যার অভিযোগ উঠেছে। পারিবারিক কলহের জেরে সন্তানকে হত্যা করে মাটিতে পুতে রাখে বাবা, পরে পারিবারিক চাপে হত্যার কথা স্বীকার করলে স্ত্রী তার স্বামীকে পুলিশে দেয়।

কাউখালীতে এরেক্কা চাকমা (২৬) নামে এক যুবক তার নিরব চাকমা (৫) বছর বয়সী পুত্রকে খুন করেছে। গত ৯ নভেম্বর উপজেলার মঘাছড়ি চন্দ্রবংশ শিশু সদনের রাস্তার পাশে গলাটিপে তাকে হত্যা করে। ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছে কাউখালী থানা পুলিশ। এরেক্কু চাকমা খাগড়াছড়ি জেলার গামারী ঢালা গ্রামের মৃত সুবল চাকমার ছেলে।

পুলিশ ও পরিবার সূত্রে জানা যায়- হত্যাকারী এরেক্কু চাকমা তার স্ত্রী অন্তরা চাকমা(২০)কে নিয়ে চট্টগ্রাম শহের ভাড়া বাসায় বসবাস  করতো।  অন্তরা পোশাক শ্রমিক হিসেবে কাজ করে, কিন্তু তার স্বামী কিছুই করে না। তাদের একমাত্র ৫ বছর বয়সী ছেলে নিরব চাকমাকে  দেখাশোনা করে চাকুরী করা তার পক্ষে কঠিন হয়ে পড়ে। গত ৮ নভেম্বর অন্তরা কাজের চাপে সন্তানকে সামলাতে না পেরে তার স্বামীকে সালমাতে বলে। এ নিয়ে তাদের মধ্যে প্রায়ই বাগ বিতন্ডা ও ঝগড়া হতো। ৯ নভেম্বর এরেক্কু চাকমা তার ছেলেকে নিয়ে কাউকে কিছু না বলে বের হয়ে যায়। পরে চট্টগ্রাম রাঙামাটি সড়কের কাউখালী উপজেলার মঘাছড়ি এলাকার চন্দ্রবংশ শিশু সদনের নির্জন পাহাড় ঘেরা রাস্তায় গলা টিপে তাকে হত্যা করে জঙ্গলে ফেলে দেয়। অন্তরা সন্তানকে না পেয়ে সন্দেহ করে বসে স্বামীকেই। পরে ১৭ নভেম্বর আত্মীয়দের সহায়তায় অন্তরা তাকে আটক করে ১৮ নভেম্বর দুপুরে পুলিশের কাছে সপোর্দ করে।

কাউখালী থানার এসআই আল আমিন জানান- হত্যাকারীর স্বীকারোক্তির ভিত্তিতে ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ  লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য মর্গে পাঠিয়েছে, বর্তমানে মামলার প্রক্রিয়া চলছে।


রাঙামাটি |  আরও খবর
এইমাত্র পাওয়া
আর্কাইভ
সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত, ২০১৭-২০১৮।    Design & developed by: Ribeng IT Solutions