বুধবার | ১২ ডিসেম্বর, ২০১৮
স্বল্প দামে বিক্রিতে সিন্ডিকেট চক্রের কারসাজি

পানছড়ি গুচ্ছগ্রামে পঁচা চাউল বিতরণের অভিযোগ

প্রকাশঃ ১৫ নভেম্বর, ২০১৮ ০৫:৩৯:১৬ | আপডেটঃ ১২ ডিসেম্বর, ২০১৮ ০৬:১৯:১১  |  ২০৭
সিএইচটি টুডে ডট কম, খাগড়াছড়ি। পানছড়িতে বাঙালি গুচ্ছগ্রামে পঁচা (খাওয়ার অযোগ্য) চাউল বিতরণের অভিযোগ উঠেছে প্রজেক্ট চেয়ারম্যান জয়নাথ দেব’র বিরুদ্ধে। পানছড়ি বাজার গুচ্ছগ্রাম এলাকায় খাদ্য শস্য বিতরণে এ ঘটনা ঘটে। 

পঁচা ও নিম্নমানের খাদ্য শস্য বিতরণের ঘটনায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছে স্থানীয় গুচ্ছগ্রামবাসীরা। ১১-১২ অক্টোবর শুরু হয় অক্টোবর মাসের কার্ডধারীদের রেশনের চাউল ও গম বিতরণের কাজ। প্রতি কার্ডধারীকে ৩৫ কেজি চাউল ও ৪৯ কেজি গম দেওয়ার কথা জানান, প্রজেক্ট চেয়ারম্যান জয়নাথ দেব।

কার্ডধারীর অভিযোগ, ভাল চাউলের স্থলে সিন্ডিকেটের মাধ্যমে অন্যত্র বিক্রয়ের জন্য পঁচা নি¤œমানের চাউল গম দেওয়া হয়েছে স্থানীয় কার্ডধারীদের। ২৮৮টি কার্ড নিয়ে গঠিত বাজার গুচ্ছগ্রামের কার্ডধারীদের চাউল না নিলে স্বল্প মুল্যে রেশনের প্রতি ডিও কার্ড বিক্রয়ের জন্য বাধ্য করা হচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে। নির্ধারিত টাকায় চাউল-গম বিক্রয় না করলে সে পঁচা চাউলই নিতে যেতে বাধ্য করা হয়েছে বলে অভিযোগ সূত্রে জানা যায়।  

পানছড়ি বাজার গুচ্ছগ্রাম এলাকার প্রজেক্ট চেয়ারম্যান জয়নাথ দেব তার বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, এ ধরনের কোন ঘটনা ঘটেনি। তিনি আরো জানান, সাধারণ কার্ডধারীরা তাদের প্রাপ্য খাদ্য শস্য নিয়ে গেছে। খাদ্য শস্য বিতরণে অনিয়ম হলে ইউএনওসহ প্রশাসনের দেখার মত দায়িত্বশীল কর্মকর্তা রয়েছে বলে তিনি জানান। পঁচা চাউল বিতরণের সিন্ডিকেটের সাথে পানছড়ি খাদ্য গুদাম কর্মকর্তাদের যোগ সাজশ রয়েছে অভিযোগ স্থানীয়দের।

পানছড়ি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) তৌহিদুল ইসলাম জানান, এ ধরণের কোন অনিয়মের অভিযোগ পাইনি। অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। স্থানীয়রা গুচ্ছগ্রামের খাদ্য শস্য বিতরণের এ অনিয়মের বিষয়ে তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের দাবী জানিয়েছে। বাজার গুচ্ছগ্রামের বর্তমান প্রজেক্ট চেয়ারম্যান জয়নাথ দেব পানছড়ি উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক বলে জানা গেছে।

এইমাত্র পাওয়া
আর্কাইভ
সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত, ২০১৭-২০১৮।    Design & developed by: Ribeng IT Solutions