শুক্রবার | ১৮ জানুয়ারী, ২০১৯
খাগড়াছড়িতে ধর্মীয় সভায় বৌদ্ধ ধর্মীয় গুরু নন্দপাল মহাস্থবির

অপরাজনীতি ও অর্ন্তঘাত পাহাড়িদের অগ্রগতিকে বাধাগ্রস্ত করছে”

প্রকাশঃ ০৩ নভেম্বর, ২০১৮ ০২:৩০:৫৬ | আপডেটঃ ১৮ জানুয়ারী, ২০১৯ ১২:৫৯:৫০  |  ৩৪৭
সিএইচটি টুডে ডট কম, খাগড়াছড়ি। খাগড়াছড়িতে ধর্মীয় সভায় বৌদ্ধ ধর্মীয় গুরু নন্দপাল মহাস্থবির বলেছেন, আন্দোলনের নামে স্বাধীনতার নামে আঞ্চলিক দলের অপ-রাজনীতি ও অর্ন্তঘাত পার্বত্য চট্টগ্রামের পাহাড়িদের অগ্রগতিকে বাধাগ্রস্ত করছে। যুব সমাজকে এই বিভ্রান্তি থেকে মৈত্রীময় পথে এনে সৃজন-কল্যাণে নিবেদিত করে শিক্ষা এবং অর্থনৈতিক শক্তিতে বলীয়ান হবার আহ্বান জানান।

তিনি শনিবার সকালে আলুটিলা আর্ন্তজাতিক বন ভাবনা কেন্দ্রে কঠিন চীবর দান উৎসবের সূচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এমন মন্তব্য করেন।
ভাবনা কেন্দ্র পরিচালনা পরিষদের সভাপতি সাবেক অধ্যাপক মধুমঙ্গল চাকমা’র সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন অজলচুগ বৌদ্ধ বিহারের অধ্যক্ষ সত্যমতি ভিক্ষু এবং দীঘিনালা বন বিহারের উপাধ্যক্ষ প্রিয়ানন্দ মহাস্থবির।
সভায় উপ-মহাদেশে খ্যাতিমান  ধর্মীয় গুরু নন্দপাল ভান্তে বলেন, আদর্শের কথা বলে মানুষের প্রাণ হরণ, বলপূর্বক সিদ্ধান্ত চাপিয়ে দেয়া অসমীচিন। দেশ-সমাজের কথা না ভেবে নিজেদের মতো করে আস্ফালন সমাজে অশান্তি এবং অস্থিরতা সৃষ্টি করছে।
তিনি আঞ্চলিক দলের নীতি নির্ধারকদের প্রতি সময় থাকতে পাহাড়িদের ভবিষ্যত চিন্তা করে নমনীয়-সহনশীল এবং সত্যের মুখোমুখি হবার অনুরোধ জানান।
সভায় অন্যান্য বক্তারাও আঞ্চলিক দলের নামে মানুষ হত্যা, গুম, খুন, অপহরণ এবং চাঁদাবাজির সমালোচনা করেন।
কয়েক হাজার দায়ক-দায়িকার উপস্থিতিতে অনুষ্ঠিত এই ভাবনা কেন্দ্রে দ্বিতীয় বারের মতো আয়োজিত কঠিন চীবর দান উৎসবে বিহার উন্নয়ন এবং পরিবহন খাতের জন্য বিপুল পরিমাণ অর্থ সহায়তা প্রদান করেন আগতরা।

খাগড়াছড়ি |  আরও খবর
এইমাত্র পাওয়া
আর্কাইভ
সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত, ২০১৭-২০১৮।    Design & developed by: Ribeng IT Solutions